Ads By Blogger

Thursday, January 31, 2019

মোবাইলে আসা এসএমএস অটো ফরওয়ার্ড করুন পিসিতে

আপনি যদি বেশির ভাগ সময় কম্পিউটারে খুব ব্যস্ত সময় পার করে থাকেন, তাহলে এর পাশাপাশি আরেকটি ডিভাইস ব্যবহার যেমন মোবাইলের মেসেজে নজর রাখাটা কিছুটা হলেও ঝামেলার মনে হতে পারে

কিংবা আপনি কম্পিউটারে খুব ব্যস্ত এবং আপনার মোবাইল কিছুটা দূরে চার্জে রয়েছেএমন পরিস্থিতি মেসেজে আসলে কম্পিউটার থেকে উঠে দিয়ে মোবাইলের মেসেজ দেখতে হবে

কিওয়ার্ড:এন্ড্রয়েডের এসএমএস পিসিতে,এন্ড্রয়েডের নোটিফিকেশন পিসিতে,কম্পিউটার পরিচালনা করুন এন্ডয়েড  দিয়ে,কম্পিউটারে চালান এন্ড্রয়েড,Android এর এসএমএস পিসিতে,Android এর এসএমএস কম্পিউটারে,bd techtunes, bd tech blog,bd tricks bd tech tip,bd bangla blog

সুতরাং এমন হলে কেমন হয় যে, আপনার মোবাইলে আসা এসএমএস আপনি আপনার কম্পিউটারেই দেখতে পাবেন এবং কম্পিউটার থেকেই অন্যের মোবাইলে মেসেজ পাঠাতে পারবেন! দারুন এই সুবিধাটি পাওয়া যাবে মাইটি টেক্সট অ্যাপ ব্যবহার করে

মাইটি টেক্সট ব্যবহার করলে আপনার অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে আসা এসএমএস বা এমএমএস কম্পিউটার বা ট্যাবলেট পিসি থেকেই দেখে নিতে পারবেনপাশাপাশি আপনার কম্পিউটার অথবা ট্যাবলেট পিসি থেকে যেকোনো মোবাইলে এসএমএস ও এমএমএস পাঠাতে পারবেনঅর্থাৎ কম্পিউটারে কাজে ব্যস্ত থাকাকালীন মোবাইলে আসা এসএমএস দেখা এবং পাঠানোর জন্য মোবাইল হাতে নেওয়ার প্রয়োজন পড়বে না

এ ছাড়া আপনার মোবাইলে কল আসলে সেই নোটিফিকেশন আসবে কম্পিউটারেমোবাইলের ব্যাটারি অ্যালার্ট নোটিকেশনসহ মোবাইলে আসা সোশ্যাল মিডিয়ার নোটিফিকেশনও জানা যাবে কম্পিউটারেই

কম্পিউটারে মোবাইলের মেসেজ দেখা ও পাঠানোর দারুণ এই সেবা পেতে স্মার্টফোন মাইটি টেক্সট অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ এবং কম্পিউটারে ওয়েব অ্যাপস ব্যবহার করতে হবেমাইটি টেক্সট ডাউনলোডের জন্য ভিজিট করুন mighty text    সাইটটিতে

mightytext-bdtipstech
mightytext-bdtipstech

মাইটি টেক্সট ছাড়াও এয়ারড্রয়েড অ্যাপের মাধ্যমেও এ ধরনের সুবিধা পাওয়া যাবে
ভিজিট: 
airdroid-bdtipstech
airdroid-bdtipstech

আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ facebook group

ফেইসবুক পেইজ facebook page
ইউটিউব চ্যানেল Youtube
Read More »

Tuesday, January 29, 2019

কিভাবে ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যারগুলি আজীবন ব্যবহার করবেন

bd bangla blog এর পক্ষ থেকে সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি আজকের এই পোস্ট।শুরু থেকে বিডি টিপস টেক আপনাদের সাথে নানা রকম টিপস উপহার দিয়ে আসছে।আজও আপনাদের সাথে দারুন একটি টিপ্স এন্ড ট্রিক্স নিয়ে হাজির হয়েছি।আজ আপনাদের দেখাবো কিভাবে যেকোনো ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যার আজীবন ব্যবহার করবেন কোনো রকম ঝামেলা ছাড়া।তো চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করি কিভাবে ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যার আজীবন ব্যবহার কর‍তে হয়

সিরিয়াল ছাড়াই সফটওয়্যার ব্যবহার কিভাবে ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যার আজীবন ব্যবহার করবেন পেইড সফটওয়্যার ব্যবহার করুন ফ্রিতে কিভাবে সিরিয়াল কি ছাড়াই সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হয় বিডি বাংলা ব্লগ বিডি টেক সাইট ট্রিক বিডি বাংলা  bangla tech site bangla tech blog bd bangla blog


১. কাজটি করার জন্য সবার প্রথম আপানকে Time Stopper নামে একটি সফটঅয়্যার ডাউনলোড করতে হবে।Time Stopper ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন
                Download time stopper bd tips tech

২. এর পর সফটওয়্যারটি ওপেন করেন, নিচের ছবির মত আসবে



ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যারগুলি আজীবন ব্যবহার
ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যারগুলি আজীবন ব্যবহার-১


৩. Browse বাটন ক্লিক করে ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যারটি সিলেক্ট করুন



ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যারগুলি আজীবন ব্যবহার bdtipstech
ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যারগুলি আজীবন ব্যবহার-২


৪. Choose the new date থেকে আগামী কালকের তারিখ সিলেক্ট করুন


ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যারগুলি আজীবন ব্যবহার trick bd
ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যারগুলি আজীবন ব্যবহার-৩

৫. Enter a name for create desktop icon বক্সে সফটওয়্যারটির নাম দিন;
ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যারগুলি আজীবন ব্যবহার-৪
ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যারগুলি আজীবন ব্যবহার-৪


৬. Create desktop short-cut বাটনে ক্লিক করুন


ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যারগুলি আজীবন ব্যবহার
ট্রায়াল ভার্সন সফটওয়্যারগুলি আজীবন ব্যবহার-৫


৭. ব্যাস, আপানার কাজ শেষ,ডেস্কটপ এ একটি shortcut তৈরি হবে। এখন থেকে সফটওয়্যারটি ওপেন করতে এই shortcut টি ব্যবহার করুন আর বিনামূল্যে সারাজীবন ব্যবহার করতে থাকেন trial software গুলো।
যেকোনো প্রয়োজনে আমরা আছি
আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ facebook group
ফেইসবুক পেইজ facebook page
ইউটিউব চ্যানেল Youtube
Read More »

Thursday, January 24, 2019

windows 10 এ যদি কোন প্রোগ্রাম না চলে


বিডি টিপ্স টেকে আপনাদের স্বাগতম। উইন্ডোজ ৭ বা ৮ অপারেটিং সিস্টেম হালনাগাদ করে কম্পিউটারে উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার করা যাচ্ছে। উইন্ডোজ ৭ ও ৮-এর কোনো প্রোগ্রাম উইন্ডোজ ১০-এ নাও চলতে পারে। আগে ব্যবহৃত প্রোগ্রাম চালাতে গেলে This program doesn’t run on Windows 10 বার্তা দেখায় মাঝে মাঝে। আবার কখনো বলে এই সফটওয়্যারটি আপনার অপারেটিং সিস্টেমের উপযোগী নয়। ঘাবড়াবেন না ! কারণ উইন্ডোজ দশেই আছে এর সঠিক সমাধান।

এটিও পড়ুন pendrive এর space ঠিক আছে তো?

যা করবেন
আগে নিশ্চিত হতে হবে আপনার কম্পিউটারের উইন্ডোজ হালানাগাদ করা কিনা। কম্পিউটারে ব্যবহৃত সব যন্ত্রাংশের চালক সফটওয়্যার (ড্রাইভার) ইনস্টল করা আছে কি না। অবশ্যই যে প্রোগ্রাম চালাবেন সেটি হালনাগাদ কিনা দেখে নিন।
অ্যাডমিন হয়ে চালু করুন
যে প্রোগ্রাম বা সফটওয়্যার চলে না, C:\/ ড্রাইভে গিয়ে সেই প্রোগ্রামের চালক ফাইলে (*.exc) ডান ক্লিক করে Run as administrator নির্বাচন করে খুলুন। যদি সেই প্রোগ্রামের অন্য কোনো সমস্যা না থাকে, তবে সেটি চলবে। না হলে পরের ধাপ অনুসরণ করুন।

কম্প্যাটিবিলিটি মোড
আগের উইন্ডোজে ব্যবহৃত প্রোগ্রাম যাতে পরের উইন্ডোজে সাবলীলভাবে চলতে পারে, সে জন্য মাইক্রোসফট উইন্ডোজ এক্সপি থেকে পরবর্তী সব সংস্করণের জন্য কম্প্যাটিবিলিটি মোড সুবিধা রেখেছে। এখন যে প্রোগ্রাম চলে না, C:\/ ড্রাইভে গিয়ে সেই প্রোগ্রামের মূল ফাইলের *.exc ফাইলে ডান ক্লিক করুন। এখানকার কনটেক্স মেনু থেকে Properties-এ ক্লিক করুন। Compatibility ট্যাবের Compatibility mode-এ থাকা Run this program in compatibility mode-এর পাশে টিক চিহ্ন দিন। তালিকা থেকে Windows 8 বা Windows 7 নির্বাচন করুন। Apply-এ ক্লিক করে OK করে বের হয়ে আসুন। এবার সেই প্রোগ্রাম আবার দুই ক্লিক করে চালু করে দেখুন। কাজ হয়ে যাবে।

এটিও পড়ুন start menu থেকেই ওয়েবে তথ্যের খোঁজ

কম্প্যাটিবিলিটি ট্রাবলশুটার
কম্প্যাটিবিলিটি ট্রাবলশুটার ব্যবহার করেও চালু না হওয়া প্রোগ্রাম চালু করা যায়। আগের মতোই সি ড্রাইভের যেখানে প্রোগ্রাম ইনস্টল করা আছে সেই সমস্যাযুক্ত প্রোগ্রামের .exc ফাইলে ডান ক্লিক করে Troubleshoot compatibility নির্বাচন করে খুলুন। সমস্যা চিহ্নিত করার জন্য কিছুক্ষণ সময় নেবে। এরপর একে একে পরবর্তী ধাপগুলো অনুসরণ করে চালু না হওয়া প্রোগ্রামকেও চালু করা যাবে।ধন্যবাদ।শেয়ার করতে ভুলবেন না।
Read More »

Monday, January 21, 2019

সফটয়্যার ছাড়াই পার্টিশন বাড়ান কম্পিউটারের

(bd tips tech)আমাদের কম্পিউটারের হার্ডডিস্কে নরমালী -৪টি পার্টিশন দেওয়া থাকে অনেক সময় আমাদের প্রয়োজনে আরও - টা এক্সট্রা পার্টিশন দিতে চাই কিন্তু অনেকে মনেকরে এর জন্য বিভিন্ন সফটয়্যার বা হার্ড সম্পুর্ণ
ফফরম্যাট দেওয়ার প্রয়োজন পড়েএবার আপনি চাইলে কোন সফটয়্যার বা হার্ডডিস্ক ফফরম্যাট ছাড়াই পার্টিশন দিতে পারবেনএর জন্য প্রথমে আপনার কম্পিউটারে থাকা My Computer  অপশনের উপর কারচার রেখে Right Click করে Manage অপশনে যান এখান থেকে Disk Management প্রবেশ করুন আপনার কম্পিউটারের টোটাল পার্টিশন দেখাবে নিচের ছবির মতো

সফটয়্যার ছাড়াই পার্টিশন বাড়ান কম্পিউটারের
সফটয়্যার ছাড়াই পার্টিশন বাড়ান কম্পিউটারের
                           laptop এর key-board কাজ না করলে

তারপর আপনার নিচের যে Drive থেকে স্পেস নিয়ে নতুন পার্টিশন Drive করতে চান-তার উপর রাইট ক্লিক করুন সেখান থেকে SHIRNK VOLUME… ক্লিক করুন।তারপর নিচের ছবির মতো Window আসবে



সফটয়্যার ছাড়াই পার্টিশন বাড়ান কম্পিউটারের
সফটয়্যার ছাড়াই পার্টিশন বাড়ান কম্পিউটারের-২
সেখান থেকে আপনার DRIVE কত স্পেস খালি আছে তাও দেখাবে এবার আপনি নতুন DRIVE ; খালি স্পেস থেকে, কত GB স্পেস নিতে চান-তার ১০২৪ MB দিয়ে গুন দিয়ে লাল চিহ্নিত জায়গায় লিখুন

যেমন, আপনি যদি ২০ MB স্পেস নতুন DRIVE দিতে চান-তাহলে ২০x১০২৪=২০৪৮০ উপরের ছবির মতো Enter The Amount of Space to Shirnk in MB  ঘরে লিখুন

তারপর SHIRNK ক্লিক করুন কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন, আপনার নতুন DRIVE তৈরি হয়ে যাবে 
তারপর আপনার কম্পিউটার রিস্টার্ট দিন তারপর আপনার নিজের পার্টিশন দেওয়া নতুন DRIVE আপনার মতো করে ব্যবহার করুন

ধন্যবাদ সবাইকে
Read More »

Sunday, January 13, 2019

ছবিকে ব্যবহার করুন password হিসেবে

(bd tips tech)বিডি টিপ্স টেকে আপনাদের সবাইকে স্বাগতম।আশাকরি সবাই ভাল আছেন। উইন্ডোজ ৮ অপারেটিং সিস্টেমে পাসওয়ার্ড হিসেবে ছবি ব্যবহার করা যায়। নিরাপত্তার জন্য আগে লিখিত পাসওয়ার্ড ব্যবহারের ব্যবহার ছিল, এখন ছবিও যুক্ত হলো।
এ ক্ষেত্রে ছবির বৃত্ত, সরলরৈখিক অবস্থান নির্ধারণ করে সেটিকে পাসওয়ার্ড হিসেবে ঘোষণা করা যাবে। এটি করতে Windows charm বা স্টার্ট মেনুতে গিয়ে settings থেকে Change PC settings থেকে Users-এ ক্লিক করুন।

এটিও পড়ুনwindows 10 এ যদি start nenu কাজ না করে

এরপর Sign-in options থেকে Create a picture password-এ ক্লিক করে ইউজার পাসওয়ার্ড দিন। এখানে কম্পিউটার থেকে এমন একটি ছবি নির্বাচন করে দিতে হবে যেটিতে অনেক লুকানো অবস্থান আছে। পিকচার পাসওয়ার্ডের উইন্ডো খুলে গেলে লুকানো অবস্থান দেখে দিতে হবে। Choose picture নির্বাচন করলে Set up your gesture উইন্ডো চালু হলে এখানে মাউসের কারসর দিয়ে যে যে অবস্থানকে পাসওয়ার্ড হিসেবে রাখতে চান, সেটি নির্বাচন করে দিন। আপনি ছবির প্রতিটি অংশকে বৃত্ত বা সরলরেখা এঁকে রেখে দিতে পারেন। তিন ধাপে এটি শেষ করে Use this picture বোতাম চাপুন।
পরের উইন্ডোতে নির্বাচন করা অবস্থান নিশ্চিত হওয়ার জন্য আবার দেখাবে। ভালো করে অবস্থান চিনে নিয়ে Finish বোতাম চাপুন। পরবর্তী সময়ে লগইনের সময় নির্বাচন করা অবস্থান দেখে দিলেই কম্পিউটারে চালু হবে।

এটিও পড়ুনstart menu থেকেই ওয়েবে তথ্যের খোঁজ

পিকচার পাসওয়ার্ড রিমুভ করতে চাইলে Sign-in options থেকে Create a picture password-এর পাশের Remove বোতাম চাপতে হবে। পোস্টটি ভাল লাগলে শেয়ার করতে ভুলবেননা।
Read More »

Wednesday, December 26, 2018

start menu থেকেই ওয়েবে তথ্যের খোঁজ


bd tips tech এ আমাদের স্বাগতম।আশাকরি সবাই ভাল আছেন। কোনো বিষয় খুঁজতে এখন ইন্টারনেট মূল ভরসা। সে ক্ষেত্রে ওয়েবসাইট দেখার সফটওয়্যার (ব্রাউজার) খুলে তারপর নির্দিষ্ট সার্চ ইঞ্জিনে গিয়ে নতুন বিষয় বা তথ্য লিখে খুঁজতে হয়। উইন্ডোজ ৭ অপারেটিং সিস্টেমে চাইলে এ কাজটি স্টার্ট মেনু থেকেই করা যায়। উইন্ডোজ ৭-এর প্রফেশনাল, আলটিমেট ও এন্টারপ্রাইজ সংস্করণের গ্রুপ পলিসি এডিটরে কিছুটা পরিবর্তন এনে স্টার্ট মেনুতেই কাঙ্ক্ষিত বিষয় লিখে তথ্য খোঁজার কাজটি করা যাবে।

এটিও পড়ুন computer বন্ধ হতে বেশি time নিচ্ছে?

সাধারণত স্টার্ট মেনুতে কিছু লিখলে সেটি ওই কম্পিউটার থেকে খুঁজে দেখায়। তাই কাজ হবে স্টার্ট মেনুতে Search the Internet নামের একটি বোতাম যোগ করা। এটি সক্রিয় করতে গ্রুপ পলিসি এডিটর চালু করতে হবে।
কাজটি করতে স্টার্ট মেনুতে গিয়ে সার্চের ঘরে gpedit.msc লিখুন। গ্রুপ পলিসি এডিটর এলে সেটিতে ক্লিক করে খুলুন। Local Policy Group Editor উইন্ডোজ চালু হলে বাঁয়ের তালিকার User Configuration থেকে Administrative Templates-এ দুবার ক্লিক করে খুলুন। Start Menu and Taskbar-এ আবার দুবার ক্লিক করুন। ডান পাশের সেটিংস থেকে Add Search Internet Link to Start Menu এন্ট্রিতে দুবার ক্লিক করে খুলুন। কনফিগারেশন মেনু চালু হলে এখানের Enabled-এ টিক চিহ্ন দিয়ে ওকে চেপে বের হয়ে আসুন।
এবার স্টার্ট মেনুতে গিয়ে কাঙ্ক্ষিত বিষয় লিখুন। লেখার ফলে স্টার্ট মেনুর সার্চের জায়গায় See more results এবং নতুন যুক্ত হওয়া Search the Internet নামের দুটি আলাদা বোতাম দেখা যাবে।

এটিও দেখুন keyboard এর shortcut গুলি দেখে নিন

এখন কাঙ্ক্ষিত বিষয় লিখে See more results-এ ক্লিক করলে লোকাল কম্পিউটার থেকে খুঁজে নিয়ে দেখাবে। আর Search the Internet-এ ক্লিক করলে উইন্ডোজের ডিফল্ট ইন্টারনেট ব্রাউজার চালু হয়ে আপনার কাঙ্ক্ষিত তথ্যকে সেখানে খুঁজে নিয়ে দেখাবে। তাই আলাদা করে ব্রাউজার খুলে সার্চ করার ঝামেলা কমে যাবে।ধন্যবাদ।
Read More »

Wednesday, December 19, 2018

windows 10 এ যদি start nenu কাজ না করে


(bd tips tech)মাইক্রোসফটের উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমে অনেক সময় স্টার্ট মেনু খোলা যায় না আবার ডিজিটাল সহকারী কর্টানা বা টাস্ক বারের সার্চকেও ব্যবহার করা যায় না। এমন সমস্যার সমাধান পাওয়া সম্ভব। এ জন্য যে কাজগুলো করা যেতে পারে—

এটিও দেখুন windows 10 এ যদি কোন প্রোগ্রাম না চলে

সিস্টেম ফাইল চেকার
উইন্ডোজের start মেনুতে ডান ক্লিক করে Command Prompt-এ ক্লিক করুন। কমান্ড প্রম্পট চালু হলে এখানে sfc/scannow লিখে এন্টার করুন। ফাইল পরীক্ষা করতে কিছুক্ষণ সময় নেবে অপারেটিং সিস্টেম। স্ক্যান করে সিস্টেম ফাইলে কোনো সমস্যা থাকলে সেটি ঠিক করবে। স্ক্যান শেষ হলে কম্পিউটারকে বন্ধ করে আবার চালু করে নিন।

উইন্ডোজ ইমেজ ফাইল মেরামত
যদি উইন্ডোজের ইমেজ অচল (আনসার্ভিসেবল) হয়ে যায়, তবে ডেপ্লয়মেন্ট ইমেজিং অ্যান্ড সার্ভিসিং ম্যানেজমেন্ট (ডিআইএসএম) টুল ব্যবহার করে এই সমস্যার সমাধান আনা যায়। এ জন্য কমান্ড লাইনে Dism/Online/Cleanup-Image/ScanHealth লিখে এন্টার করুন। কমান্ডটি চললে (রান) কয়েক মিনিট পর সিস্টেম ইমেজের কয়টি ফাইল নষ্ট হয়েছে সেটি খুঁজবে। আবার Dism/Online/Cleanup-Image/CheckHealth লিখে কমান্ড দিলে নষ্ট হওয়া ফাইলের বর্তমান অবস্থা দেখাবে। এটি সম্পন্ন হতে কিছুক্ষণ সময় নিতে পারে। এবার কমান্ড লাইনে Dism/Online/Cleanup-Image/RestoreHealth লিখে এন্টার করুন। এই কমান্ডটি উইন্ডোজ ইমেজের নষ্ট ফাইলের বদলে ভালো ফাইল বসিয়ে দেবে। স্ক্যান হতে কখনো বেশি সময় নিতে পারে, তাই শেষ হলে কম্পিউটার বন্ধ করে আবার চালু করে নিয়ে দেখুন সমস্যা দূর হয়ে যাবে।
স্টার্ট মেনু পুরো পর্দায়
উইন্ডোজ দশে স্টার্ট মেনুকে পুরো পর্দায় দেখা যায়। যদি স্টার্ট মেনু স্বাভাবিকভাবে চালু না হয়, তবে পুরো (ফুল) পর্দায় সেটিকে সেট করে চালু করা যাবে। Win + I চেপে সেটিংস অ্যাপ চালু করুন।

এটিও পড়ুন কিছু notepad ট্রিকস (part-3)

Personalization-এ ক্লিক করে আবার Start-এ ক্লিক করুন। Start behaviors-এর অধীনের Use full-screen Start when in the desktop এ ক্লিক করে On করুন। এখন স্টার্ট মেনুতে ক্লিক করলে সেটি পূর্ণ পর্দায় দেখাবে।শেয়ার করে টাইমলাইনে সেভ করে রাখতে পারেন।
বিডি টিপ্স টেক।
Read More »

Get post by Email

copyright 2014-2020@bdtipstech DMCA.com Protection Status