Ads By Blogger

Saturday, February 02, 2019

ছাত্র জীবনে ১০টি ভুল যা আপনার ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দিতে পারে

বিডি টিপ্স টেকে আপনাদের স্বাগতম।ছাত্রজীবন হলো আমাদের জীবনের সবথেকে গুরুত্তপূর্ণ একটি অধ্যায়। যেই সময়টিকে আমরা ভবিষ্যৎ এর চাবিকাঠি হিসেবে ব্যবহার করে থাকি। তবে যেই সময়টিই আমাদের জন্য এতটা গুরুত্তপূর্ণ সেই সময়টিকেই আমরা হেয়ালিপনাতেই কাটিয়ে দিই সবথেকে মজার এবং হাস্যকর যেই ব্যাপার টি তা হলো আমরা বুঝতেও পারি না যে আমাদের এই সময় টা কে আরো বেশি করে কাজে লাগানো উচিত বা এটার যথাযথ ব্যবহার করা উচিত। বড়দের কথাগুলো ও অনেক দিক নির্দেশনা মূলক হয়ে থাকে, তবে আমরা তাদেরকে এতটা মূল্যায়ন করি না, যেটা আমরা পরে বুঝতে পারি। চলো দেখা যাক ছাত্র জীবনের ১০ টি ভুল যা আমাদের ক্যারিয়ার ধ্বংস করতে পারেঃ
stuendnt life fault-bd tips tech
stuendnt life fault-bd tips tech

পেশা নির্বাচন করার সঠিক কৌশল - ১০টি চমৎকার কৌশল  ১০ অভ্যাসে ক্যারিয়ার শেষ কাজ ফেলে রাখা বা ঢিলেমির ৮টি ভয়াবহ কুফল ছাত্র জীবনে যা দরকার ছাত্র জীবনের কর্তব্য ছাত্র জীবনের আদর্শ ও কর্তব্য ছাত্র জীবনের দায়িত্ব ও কর্তব্য রচনা pdf ছাত্র জীবনে শৃঙ্খলা ও নিয়মানুবর্তিতা ছাত্র জীবনে শৃঙ্খলা ও নিয়মানুবর্তিতা রচনা ছাত্র জীবনে শৃঙ্খলা রচনা প্রবন্ধ রচনা ছাত্র জীবনের দায়িত্ব ও কর্তব্য ছাত্র জীবনে নিয়মানুবর্তিতা


 ১. বড়দের কথা না শোনাঃ শুরু টা স্কুল জীবন দিয়েই করা যাক। স্কুল জীবনটা আমাদের জীবনের সবথেকে মধুর অধ্যায়। এই সময়টাকে আমরা শৈশবকাল বলে থাকি যখন আমাদের কোনো ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা বা চিন্তা কোনোটাই থাকে না। তাই বড়দের কথা শুনতে হবে। 

২. বন্ধুবান্ধব এ আসক্তিঃ বন্ধুবান্ধব, খেলাধুলা, আনন্দ, মাস্তিতেই এ জীবনটা আমরা অতিবাহিত করে থাকি। শৈশবকালে আমাদের খেলাধুলা এবং বন্ধুবান্ধব, এর প্রতি বেশি আসক্ত হয়ে পরাটা আমাদের জন্য ক্ষতিকর। 

৩. নিজের ওয়াদা নিজেই ভঙ্গ করাঃ কিছু মানুষ আমাদের চারপাশে থাকে যারা কিভাবে যেন সবকিছুতেই ভয়াবহ রকমের সাফল্য পায় কিন্তু আমরা চেষ্টা তো করি কিন্তু পারি না কেনো? উত্তর টা আমাদের খুজে বের করতে হবে এবং দূর্বল যায়গা গুলোতে উন্নতি করতে হবে।

 ৪. কৈশোরে পারিপার্শ্বিকঃ আমরা আমাদের পারিপার্শ্বিক এর সাথে অনেক সময় পড়ালেখা বা অনেক কিছুতেই পেরে উঠি না, তার কারন আমরা আমাদের ১০০% পরিশ্রম দিতে ব্যর্থ। সফলতা পাওয়ার কোনো সহজ উপায় নেই তাই পরিশ্রম করেই সফলতা অর্জন করতে হবে। 

৫. কলেজ লাইফে উশৃঙ্খলতাঃ মদ, ইয়াবা ইত্যদি বিভিন্ন নেশাতে জড়িয়ে পড়া এই সময়টার সবথেকে বড় ভুল। নেশা থেকে আমাদের দূরে থাকতে হবে। 

৬. বন্ধুদের প্রলোভনঃ বন্ধদের খারাপ প্র্লোভন থেকে আমাদের নিজেদেরকে রক্ষা করতে হবে। 

৭. ভালো কাজে নিজ দায়িত্বঃ এই সময় টাতে আমরা জীবনের মানেগুলো বুঝতে পারি এবং আমরা আমাদের জীবনটাকে গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করি। আমাদের ভালো কাজগুলোর প্রতি দ্বায়িত্ববান থাকা উচিত। 

৮. বন্ধু বাছাইঃ এই সময়েই আমরা অনেকেই অনেক খারাপ কাজে জড়িয়ে পরি যেটা আমাদের পরবর্তী জীবনে খারাপ প্রভাব ফেলে। তাই আমাদের ভালো বন্ধু বেছে নেয়া দরকার। 

৯. সময়ের সঠিক ব্যবহার না করাঃ আমরা সবাই “সময়ের মর্যাদা” রচনাটি কম বেশি পরেছি কিন্তু আমরা কি আমাদের সময়টাতক সঠিখভাবে কাজে লাগাই? সময়টাকে সঠিক পথে ব্যবহার করতে হবে। 

১০. আপনার স্বপ্নঃ আমি কি হবো? আমার ক্যারিয়ারের কি হবে? আগে এই সিদ্ধান্ত নিতে হবে তারপর সেই আনুযায়ি আমাদের সামনে এগিয়ে যেতে হবে। জেনে রাখা উচিত যে উদ্দেশ্যহীন যাত্রা কখোনো মধুর হয় না। “সবার জন্য শুভকামনা”

যেকোনো প্রয়োজনে আমরা আছি
আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ bd tech group
ফেইসবুক পেইজ bd tips tech
ইউটিউব চ্যানেল Youtube channel
Read More »

Wednesday, January 09, 2019

Subject Review-Applied Mathematics কেন পড়বেন এপ্লাইড ম্যাথ

প্রতিষ্ঠার ক্রমানুসারে নোবিপ্রবির ষষ্ঠ ডিপার্টমেন্ট এপ্লাইড ম্যাথমেটিক্স।২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষে 'ম্যাথমেটিক্স' ডিপার্টমেন্ট হিসেবে যাত্রা শুরুর এক বছরের মাথায় তা 'এপ্লাইড মাথমেটিক্স' নাম ধারন করে।বর্তমানেএটি নোবিপ্রবির অন্যতম ওয়েল ফারনিশড ডিপার্টমেন্ট।এই ডিপার্টমেন্টের আছে নিজস্ব ফ্লোর,পর্যাপ্ত ক্লাস রুম,৭ জন হাইলি কোয়ালিফাইড টিচার(এছাড়া বেশ ক’জন নতুন টিচার নিয়োগের প্রক্রিয়া চলছে) এবং সুসজ্জিত ল্যাব।এই তো গেল ডিপার্টমেন্ট হিসেবে নোবিপ্রবিতে এপ্লাইড ম্যাথের অবস্থা।এবার আসো জেনে নেয়া যাক সবজেক্ট হিসেবে এপ্লাইড ম্যাথের অবস্থান।
এপ্ললাইড ম্যাথ-bdtipstech
এপ্লাইড ম্যাথ


সাবজেক্ট হিসেবে আমাদের দেশে এপ্লাইড ম্যাথ প্রায় নতুন হলেও উন্নত দেশ গুলোতে এর চর্চা হচ্ছে বেশ আগ থেকেই।জেনে খুশি হবে স্যার আইজ্যাক নিউটন,চার্লস ব্যাবেজ,স্টিফেন হকিং এনারা সবাই এপ্লাইড ম্যাথেরই
লোক ছিলেন;বিশ্বাস না হলে গুগোল করে দেখতে পারো।জানো তো ম্যাথকে বলা হয়ে থাকে ল্যাঙ্গুয়েজ অব সাইন্স এছাড়া বিজ্ঞানী গ্যালিলিও বলেছেন-'Mathematics is the language that god has written the universe.'
একটা বিষয় অন্ততঃ নিশ্চিত যে ম্যাথ ছাড়া গোটা বিজ্ঞান জিনিসটাই অচল।আর এপ্লাইড ম্যাথ হচ্ছে সেই ম্যাথেরই প্রয়োগ;তার মানে সাবজেক্ট হিসেবে এর গুরুত্ব কতোটুকু বুঝতেই পারছো।
এবার আসো জেনে নেয়া যাক এপ্লাইড ম্যাথে তোমাকে কি কি পড়তে হবে-
1. Classical Math (Algebra, Geometry, Trigonometry, Set Theory, Number Theory etc.)
2. Calculus.
3. Fluid Mechanics.
4. Scientific Computing.
5. Computer Programming.
6. Statistics.
7. Actuarial Science.
8. Mathematical Economics. ইত্যাদি।
এপ্লাইড ম্যাথে ব্যাচেলর ডিগ্রী কমপ্লিট করার পর তোমাদের জন্য খুলে যাবে উচ্চ শিক্ষার এক নতুন দুয়ার।তোমরা চাইলে এপ্লাইড ও পিউর ম্যাথ বাদে কম্পিউটার সাইন্স, আইসিটি, বায়োইনফরমেটিক্স, বায়োস্ট্যাটিসটিক্স ইত্যাদি সবজেক্টের উপরও মাস্টার্স করতে পারবে।এছাড়া ইকোনমিক্স ও বিজনেস রিলেটেড সবজেক্টে সুইচ করার সুযোগ তো রয়েছেই।
পড়াশোনা কমপ্লিট করার পর আছে ব্যাংকার, আইটি এক্সপার্ট, শিক্ষকতা, রিসার্চার ইত্যাদি পেশায় কাজ করার সুযোগ।এছাড়া বিসিএস এর সুযোগ তো আছেই।
আরেকটা ব্যাপার।বাংলাদেশে মাত্র ৩টি ভার্সিটিতে এপ্লাইড মাথ সাবজেক্টটি পড়ানো হয়-
১. রাবি।
২. নোবিপ্রবি।
৩. ঢাবি।
ঢাবিতে গতবারই মাত্র এপ্লাইড ম্যাথ চালু হল;সে হিসেবে নোবিপ্রবির এপ্লাইড ম্যাথ ডিপার্টমেন্ট দেশের অন্যতম প্রাচীন এপ্লাইড ম্যাথ ডিপার্টমেন্ট।
ও হ্যাঁ!সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হচ্ছে এই সাবজেক্টে পড়তে হলে ম্যাথের প্রতি তোমার ভালোবাসা থাকতে হবে।একটা দারুন রিভিউ পড়ে এই সাবজেক্ট নেয়ার আগে নিজেকে জিজ্ঞেস করে নিও সত্যিই তুমি ম্যাথ ভালোবাসো কিনা?!না হয় পরে পস্তাতে হবে।এবার সিদ্ধান্ত তোমার।ম্যাথের সাথে তুমি অ্যারেঞ্জ ম্যারেজ করবে?নাকি লাভ ম্যারেজ? https://www.facebook.com/images/emoji.php/v9/ff8/1.5/16/1f61b.png:p
তোমরা যারা এপ্লাইড ম্যাথে ভর্তি হবে তাদের স্বাগত।
স্বাগত নোবিপ্রবিতে।
স্বাগত এপ্লাইড ম্যাথ পরিবারে।
সবার জন্য শুভকামনা।
নোবিপ্রবির ফেইসবুক পেইজ থেকে নেওয়া.........
যেকোনো প্রয়োজনে আমরা আছি
আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ bd tech group
ফেইসবুক পেইজ bd tips tech
ইউটিউব চ্যানেল Youtube channel
Read More »

Saturday, November 11, 2017

সাবজেক্ট রিভিউ-ইংরেজী

আধুনিক যুগে প্রযুক্তি যত বেশি অগ্রসর হচ্ছে মানুষ তত বেশি রোবটিক হয়ে যাচ্ছে। এ সময়টায় আমরা সংস্কৃতি, মানসিক বিকাশ, মানুষে মানুষে বন্ধন, নৈতিকতা, মানসিক প্রশান্তি, এ বিষয়গুলো শিক্ষার মধ্যে খুব একটা খুঁজে পাই না; আমরা বরং প্রতিনিয়ত শিক্ষাকে প্রাগমেটিক ভেল্যুর সোপান বানাচ্ছি। এ ক্ষেত্রে তোমাকে অন্য রকম এক অনুভূতি দিতে পারে সাহিত্য সংক্রান্ত যে কোন বিষয়; সেটা হতে পারে, বাংলা, আরবি, অথবা ইংরেজি সাহিত্য। বলা হয়ে থাকে "সাহিত্য হল জীবনের প্রতিচ্ছবি"। কিন্তু বর্তমান বিশ্বে ইংরেজির চাহিদা তথা ইন্টারন্যাশনাল ল্যাংগুয়েজ হওয়ায় এখানে এক ডিলে দুই পাখি মারার একটা ব্যাপার চলে আসে। তুমি যেমন জীবনকে খুব কাছ থেকে দেখার সুযোগ পাবে, তেমনি জব মার্কেটেও আছে তোমার জন্য বিপুল সম্ভাবনা।
ইংলিশ-bd tips tech
ইংলিশ-bd tips tech

যা পড়ানো হয়: যারা মনে করে বসে আছো ইংরেজি মানে গ্রামার, আর শব্দ শেখা তাদের জন্য এই ডিপার্টমেন্ট না। কিন্তু যারা চাও হাজার বছর আগের মানুষের সাথে একটু হেটে আসবো, সুপার ন্যাচারাল জগতে হারিয়ে যাবো, ভৌতিক ভয়ানকতায় কম্পিত হবো, মানুষের মনের মধ্যে বিচরণ করবো, বিপ্লব শিখবো, নারী-পুরুষের আদিম প্রেমের গল্প শুনবো, চাঁদনী রাতে দু'লাউন কবিতা বলে প্রেমিকার খোপায় একটা ফুল গেঁথে দিব, এই রোবটিক যুগেও মানুষে মানুষে ভালাবাসায় হারাবো তাদেরকে মোস্ট ওয়েলকাম।
এখানে প্রথম সেমিস্টারেই তোমাকে দেয়া হবে লিটারেচারের বেসিক ধারনা, জানানো হবে বাংলাদেশের ইতিহাস, আর প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রযুক্তি থাকবে না তা কী হয়? তাই আছে কম্পিউটার ফান্ডামেন্টালস, গণিতও। যতই অগ্রসর হবে শিখতে থাকবে পোয়েট্রি, ইংল্যান্ডের ইতিহাস, ফিলসোফি, নোভেল, ট্র্যাজেডি, কমেডি, ক্লাসিক সাহিত্য, ক্রিটিসিজম ইত্যাদি। মাঝে মাঝেই সাহস করে বসবে বিশ্ব বিখ্যাত সাহিত্যিকদের কর্মগুলোর সমালোচনা লিখতে, সিনেমা-নাটক থেকে শুরু করে সব ধরনের সাংস্কৃিতিক কর্মযজ্ঞে তোমার পয়েন্ট অব ভিউ হবে সবার থেকে ভিন্ন।
কর্মক্ষেত্র:
তোমার বিষয়ের মত করেই, তোমার কর্মক্ষেত্রও ব্যাপক বিস্তৃত। প্রথমেই আসি বর্তমান বাংলাদেশের ক্রেজ বিসিএস নিয়ে। তোমাদের জন্য আছে শিক্ষা ক্যাডার, যেখানে যে কোন বিষয়ের চেয়ে ইংরেজি শিক্ষকই বেশি নেয়। সাথে জেনারেল ক্যাডারতো আছেই, আর তুমি ইংরেজিতে এগিয়ে আছো মানে তোমাকে ঠেকায় কে! আছে ব্যাংক, মাল্টিন্যাশনাল কম্পানি, ইংরেজি দৈনিক সহ বাংলাদেশে যত রকম জব আছে তার ৯০শতাংশতেই ইংরেজির গ্রাজুয়েটরা অংশগ্রহন করতে পারে। সর্বোপরি ইংরেজি বিভাগের কেউ কখনো বেকার থাকে না। সুতরাং যোগ্যতা থাকলে আর চিন্তা না করে চলে আসো আমাদের পরিবারে।
অসুবিধাসমূহ:
১/ সাহিত্যের প্রতি ভালবাসা না থাকলে না আসাই উত্তম, লাইফ হেল হয়ে যাবে।
২/ভাল রেজাল্ট সেতো সোনার হরিণ, তোমারই রুমমেট যখন ৩.৮০ সেলিব্রেট করবে, তোমার তখন ২.৮০ তেই সন্তুষ্ট থাকতে হতে পারে।
৩/ কল্পনা শক্তি প্রবল না থাকলে, জীবন সংকটে পড়তে পারে।
৪/ খেয়ে যেতে পারো সেশন জট।
এগুলো মাথায় নিয়ে যতি উজ্জ্বল ভবিষ্যত আর সাহিত্যের ভালবাসায় হারানোর সাহসী কল্পনা করতে পারো, তবে চলে আসো তোমাদের সহযোগীতায় আছি আমরা।
যেকোনো প্রয়োজনে আমরা আছি
আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ bd tech group
ফেইসবুক পেইজ bd tips tech
ইউটিউব চ্যানেল Youtube channel
Read More »

সাবজেক্ট রিভিউ ফিশারিজ এন্ড মেরিন সায়েন্স(ফিমস)


নোবিপ্রবিতে ফিমস কেমনঃ
ফিমস নোবিপ্রবির অন্যতম সয়ংসম্পূর্ণ ডিপার্টমেন্ট। নোবিপ্রবি এবং ফিমস এর যাত্রা একই সঙ্গে শুরু।সায়েন্স এর ডিপার্টমেন্ট গুলোর মধ্যে একমাত্র ফিমস ডিপার্টমেন্ট ই সম্পূর্ণ নিজেদের শিক্ষকদের দারা পরিচালিত।অন্যান্য ডিপার্টমেন্ট এর চেয়ে এই ডিপার্টমেন্ট এ শিক্ষক সংখ্যা তুলনামুলক বেশী। সেশন জট পুরোপুরি মুক্ত।নির্ধারিত সময়ের আগেই কোর্স কমপ্লিট হয়ে থাকে।এই ডিপার্টমেন্ট এ পড়লে পাবে একজন বিজ্ঞানীর(নোবিপ্রবির গর্ব দুটি নতুন প্রাণীর আবিষ্কারক ফিমস এর ড.বেলাল) ক্লাস করার সৌভাগ্য।নোবিপ্রবির ইতিহাসে ভাল রেজাল্ট করার দিক দিয়ে ফিমস ডিপার্টমেন্ট কে অন্য কোন ডিপার্টমেন্ট এখনও টপকাতে পারে নি।প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্বর্ণপদক প্রাপ্ত স্নাতক শিক্ষার্থী ফিমস এর অর্জন। এই ডিপার্টমেন্ট থেকে বিসিএস ক্যাডার এর সংখ্যাও চোখে পরার মত।আছে উন্নত ল্যাব,নিজস্ব সেমিনার লাইব্রেরী।নোবিপ্রবির ফিসারিস ভাল হওয়ার কারন হলো এখানে মেরিন সায়েন্স কে বেশী গুরুত্ব দেওয়া হয়।উপকুলীয় অক্সফোর্ড খ্যাত নোবিপ্রবি সমুদ্রের কাছে হওয়ায় ফিমস এর স্টুডেন্ট দের রয়েছে মেরিনে যেয়ে হাতে কলমে ফিল্ড ওয়ার্ক করার সুযোগ যে সুযোগ অন্যান্য ভার্সিটির ফিসারিস স্টুডেন্ট দের কম।সবচেয়ে গৌরবের ব্যাপার হল নোবিপ্রবিতে ফিমস ডিপার্টমেন্ট এর স্টুডেন্ট দের গবেষণার জন্য উপকুল এর কাছে মেরিন সায়েনস রিসার্চ ইন্সটিটিউট এর কাজ শুরু হয়েছে।যা নোবিপ্রবির চেয়েও বড় প্রায় ৯০০ একর জায়গা জুড়ে প্রতিষ্ঠিত হবে।এটি নোবিপ্রবির ফিমস এর জন্য এক অপার সম্ভাবনার দ্বার খুলে দিবে।
. .
এখন আসা যাক সাবজেক্ট আলোচনায়।
.
যারা ফিসারিস কি জানেনা তারা ভাবে ফিসারিস মানে বুঝি শুধু মাছ আর মাছ,শুধুই মাছ নিয়ে পড়ে থাকা।তাদের জন্য ফিসারিস এর সঙগা টা জানা জরুরি। FISHERIES IS A SCIENCE OF AQUATIC AND SEMI-AQUATIC ORGANISM. অর্থাৎ শুধু জলজ নয় উভচর প্রণীরাও ফিসারিস এর অন্তর্গত। পৃথিবীর চারভাগের তিন ভাগই ফিসারিস স্টুডেন্ট দের কর্মস্থল।এই সাবজেক্ট এ পড়লে পাবা নদী-সমুদ্র-মোহনার বিশালতায় হারিয়ে যেতে।তিমি,হাঙ্গর,কুমির,অক্টোপাস,স্কুইড,সব ধরনের মাছ থেকে শুরু করে জলরাজ্যের ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র প্লাঙ্কটন,হাইড্রা নিয়ে শুরু হবে তোমার নতুন ভাবনা।পৃথিবীর সকল নদী -সমুদ্রের প্রোপার ম্যানেজমেন্ট, দুষন রোধ করা হবে তোমার দায়িত্ব।বলার অপেক্ষায় রাখে না বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ফিসারিস কতটা গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করছে।সমগ্র পৃথিবীর উন্নত দেশগুলো ফিসারিস সেক্টর ডেভলপ করার জন্য ঝুকে পড়েছে।
.
ফিসারিস গ্রাজুয়েটদের রয়েছে উচ্চশিক্ষার সুযোগ। ভাল স্কোর নিয়ে বি.এস-সি ফিশারীজ (অনার্স) ডিগ্রী অর্জনের পর একজন গ্রাজুয়েট দেশের দেশের বাইরের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে নিম্নলিখিতভাবে যোগ দিতে পারেন-
- বৃত্তিসহ পোষ্ট গ্রাজুয়েট কোর্সে (যেমন এম.এস.) অংশগ্রহণ
- বৃত্তিসহ গবেষণামূলক এমফিল/পি-এইচ.ডি. কোর্সে অংশ গ্রহণ
- ফিশারীজ অনুষদে শিক্ষক হিসেবে যোগদান
- রিসার্চ ফেলো বা গবেষণা সহকারী হিসেবে যোগদান
fisheries and marine science-bdtipstech
fisheries and marine science-bdtipstech

.
.
এবার আসা যাক জব সেক্টর এ.....
.
সারা বিশ্বের সাথে প্রতিযোগিতা করে বাংলাদেশ ফিসারিস সেক্টর এ ৫ম স্থান অধিকার করেছে।তাই এই প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য বাংলাদেশ সহ সারা বিশ্ব ফিসারিস গ্রাজুয়েট দের চাহিদা বেড়েই চলেছে।সম্প্রতি বাংলাদেশ যে বিশাল সমুদ্রসীমা অর্জন করেছে তা ফিসারিস স্টুডেন্ট দেরকে জবের জন্য আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে গেছে।ফিসারিস গ্রাজুয়েড দের দেশ এবং বিদেশে অনেক জব সেক্টর এর মধ্যে কয়েকটি তুলে ধরলাম.....
.
.
★মৎস অধিদপ্তর
★দেশ বিদেশের রিচার্চ ইনস্টিটিউশন এ প্রথম শ্রেণীর গবেষক।
★বিভিন্ন ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন।
★এগ্রো বেইজড ইন্ডাস্ট্রিতে কনসালটেন্ট অফিসার।
★ফিস প্রসেসিং ইন্ডাস্ট্রি
★ফিস এক্সপোর্টিং এ্যাসোসিয়েশন।
★বিসিএস এ সতন্ত্র কোটা থাকায় জব এ অপার সম্ভাবনা।
★উপজেলা,জেলা মৎস অফিসার।
★ফিসারিস এক্সটেনশন অফিসার।
★বিভিন্ন ব্যাংকের ফিশারীজ বিষয়ক ঋণপ্রদানের
সেকশনে কাজ করার সুযোগ রয়েছে। যেমন-
--বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক
--রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক
--সোনালী ব্যাংক
--অগ্রণী ব্যাংক
--রূপালী ব্যাংক
--জনতা ব্যাংক
--সমবায় ব্যাংক
--কর্মসংস্থান ব্যাংক ইত্যাদি।
★আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহ:
বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের
মতো আমাদের দেশেও ফিশারীজ বিষয়ক কার্যক্রম
পরিচালনা করে থাকে যেখানে ফিশারীজ গ্রাজুয়েটের
জবের সুযগ রয়েছে। যেমন-
--ওয়ার্ল্ড ফিস সেন্টার
--ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট(ডিএফআইডি)
--CARE INTERNATIONAL,
--FAO
--UNDP
--কারিতাস বাংলাদেশ
--নেচার কনজারভেসন মুভমেন্ট
--এশিয়ান ওয়েটল্যান্ড ব্যুরো
--DANIDA
--সোসাইটি ফর কনসারভেসন অব নেচার এন্ড এনভায়রনমেন্ট(এসসিওএনই)
--ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনসারভেসন অব নেচার এন্ড
--ন্যাচারাল রিসোর্স (আইইউসিএন)
--সাউথ এশিয়া পার্টনারশিপ বাংলাদেশ।
★Ministry of Water Resources
★Scraps Institution of Marine Science
★Alfred Weznar Marine Institution
★NOAA
★NIO
★মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়
★বাংলাদেশ মৎস্য সম্পদ গবেষণা কেন্দ্র (বিএফআরআই) ও
এর শাখা ও উপকেন্দ্রসমূহ
★বাংলাদেশ মৎস্য সম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্র (বিএফডিসি) ও
এর শাখা কেন্দ্রসমূহ
★ফিশারীজ ও ফিশারীজ সংশ্লিষ্ট একাডেমী ও
প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে।
★শিপিং মন্ত্রণালয়
★BSTI
★অ্যাকুরিয়াম ইন্ডাস্ট্রি
★মেরিন রিলেটেট বিভিন্ন জব
★বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কেন্দ্র (বিএআরসি বা বার্ক)
.
এছাড়াও ফিসারিস গ্রাজুয়েড রা উদ্যোক্তা হওয়ার মাধ্যমে নিজের ও অপরের জবের সুযোগ করে দিতে পারে।
এ তো গেল ফিশারিজ রিলেটেড ফিল্ড। এর বাইরেও অনেক ফিল্ড এ ফিশারিজ গ্রাজুয়েট দের জবের সুযোগ আছে।
.
১৩ তম ব্যাচকে অভিনন্দন নোবিপ্রবির সবুজ প্রান্তরে।
অভ্র,
ফিমস ১১ তম ব্যাচ ,NSTU.

যেকোনো প্রয়োজনে আমরা আছি
আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ bd tech group
ফেইসবুক পেইজ bd tips tech
ইউটিউব চ্যানেল Youtube channel
Read More »

Wednesday, November 16, 2016

ডাউনলোড করে নিন 2017 সালের ssc পরীক্ষার রুটিন(ssc routine 2017 Download)

(bd tips tech)বিডি টিপ্স টেকে আপনাদের স্বাগতমআশাকরি সবাই ভাল আছেনপ্রতিবারের ন্যায় এবারও এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হবে আগামী 2017 সালের 2 ফেব্রুয়ারি
 
ssc routine 2017 Download
ssc routine 2017 Download

keyword:ssc routine download,ssc routine bangladesh,ssc routine 2017,download ssc routine 2017,এসএসসি রুটিন ডাউনলোড,২০১৭ এসএসসি রুটিন,২০১৭ সালের এসএসসি রুটিন,২০১৭ সালের মাধ্যমিক পরিক্ষার রুটিন

রোববার (২৯ নভেম্বর) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে ২০১৬ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার সূচি প্রকাশ করা হয়



এবারও প্রথমে বহুনির্বাচনী (এমসিকিউ) ও পরে সৃজনশীল/রচনামূলক (তত্ত্বীয়) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবেউভয় পরীক্ষার মধ্যে ১০ মিনিট বিরতি থাকবে

পরীক্ষা হলসমূহে এমসিকিউ প্রশ্নপত্রের পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার স্বার্থে ২০১৬ সাল থেকে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় এমসিকিউ প্রশ্নপত্রের পরীক্ষা সৃজনশীল প্রশ্নপত্রের পরীক্ষার পূর্বে অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত হয়

এবার ৩০ নাম্বার এমসিকিউ এবং ৭০ নাম্বার সৃজনশীল পরীক্ষা হবে




 পরীক্ষার্থীদের এমসিকিউ/সৃজনশীল ও ব্যবহারিক অংশে পৃথকভাবে পাস করতে হবে

এমসিকিউ এবং তত্ত্বীয় পরীক্ষা ২ ইফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে শেষ হবে ৪ই মার্চসকালের পরীক্ষা ১০টা থেকে ১টা এবং বিকালের পরীক্ষা হবে ২টা থেকে ৫টা পর্যন্ত

     
                 ধানের খেত থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনব্যবহারিক পরীক্ষা ৫ইমার্চ শুরু হয়ে শেষ হবে ১১ই মার্চ


রুটিন ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক(কিছুক্ষন অপেক্ষা করুন তারপর skip add. এ ক্লিক করুন)করনধন্যবাদ
পোস্টটি ভাল লাগলে কমেন্ট এবং শেয়ার করতে ভুলবেন না।
Read More »

Monday, November 30, 2015

ডাউনলোড করে নিন 2016 সালের ssc পরীক্ষার রুটিন

(bd tips tech)বিডি টিপ্স টেকে আপনাদের স্বাগতম।আশাকরি সবাই ভাল আছেন।প্রতিবারের ন্যায় এবারও এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হবে আগামী ২০১৬ সালের ১ ফেব্রুয়ারি।

রোববার (২৯ নভেম্বর) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে ২০১৬ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার সূচি প্রকাশ করা হয়।


এটিও পড়ুন বাংলা বই ফ্রি ডাউনলোড করার কিছু ওয়েবসাইট

এবার প্রথমে বহুনির্বাচনী (এমসিকিউ) ও পরে সৃজনশীল/রচনামূলক (তত্ত্বীয়) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। উভয় পরীক্ষার মধ্যে ১০ মিনিট বিরতি থাকবে।

এতোদিন সৃজনশীল প্রশ্নপত্রের পরীক্ষা শুরুতে সম্পন্ন হওয়ার পর এমসিকিউ প্রশ্নপত্রের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছিলো। কিন্তু কোনো কোনো প্রতিষ্ঠানে প্রশ্নপত্রের প্যাকেট খুলে এমসিকিউ অংশের উত্তর শিক্ষার্থীদের জানিয়ে দেওয়া হতো বলে অভিযোগ উঠে।

গত ৭ অক্টোবর শিক্ষা মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত দেয়, ২০১৬ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় সৃজনশীল পরীক্ষার আগে এমসিকিউ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

পরীক্ষা হলসমূহে এমসিকিউ প্রশ্নপত্রের পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার স্বার্থে ২০১৬ সাল থেকে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় এমসিকিউ প্রশ্নপত্রের পরীক্ষা সৃজনশীল প্রশ্নপত্রের পরীক্ষার পূর্বে অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত হয়।

শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে না বলে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. শ্রীকান্ত কুমার চন্দ স্বাক্ষরিত সূচিতে জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, পরীক্ষার্থীদের এমসিকিউ/সৃজনশীল ও ব্যবহারিক অংশে পৃথকভাবে পাস করতে হবে।

এমসিকিউ এবং তত্ত্বীয় পরীক্ষা ১ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে শেষ হবে ৮ মার্চ। সকালের পরীক্ষা ১০টা থেকে ১টা এবং বিকালের পরীক্ষা হবে ২টা থেকে ৫টা পর্যন্ত।
এটিও পড়ুনজোয়ার ভাটা কি এবং কেন হয়?

         ডাউনলোড করে নিন 2017 সালের ssc পরীক্ষার রুটিন(ssc routine 2017 Download)
ব্যবহারিক পরীক্ষা ৯ মার্চ শুরু হয়ে শেষ হবে ১৪ মার্চ।

রুটিন ডাউন করতে এখানে ক্লিক করন।ধন্যবাদ।
Read More »

Sunday, August 16, 2015

medical ভর্তি পরীক্ষা এগিয়ে ১৮


বিডি টিপ্স টেকে আপনাদের সবাইকে স্বাগতম।২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস ও বিডিএস ভর্তি পরীক্ষা এগিয়ে আনা হয়েছে। আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পূর্ব ঘোষিত তারিখ ছিল ২ অক্টোবর। আজ রোববার স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক খুদে বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়।

গত বছর থেকে ভর্তি পরীক্ষার পাস নম্বর ন্যূনতম ৪০ করা হয়েছে। বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলো এর বিরোধিতা করে আসছে। তারা চায় পরীক্ষায় অংশ নিলেই শিক্ষার্থীকে ভর্তির অনুমতি দিতে হবে।

গত ৯ আগস্ট প্রকাশিত হয় এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল। এই ফল এবং পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল কলেজের আসনসংখ্যা পর্যালোচনা করে এমন দেখা যায় জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীদের তুলনায় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল কলেজগুলোতে আসনসংখ্যা বেশি। এবার মেধার সর্বোচ্চ স্বীকৃতি জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা গতবারের চেয়ে প্রায় ২৮ হাজার কমে গেছে। এবার ১০ বোর্ড মিলিয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪২ হাজার ৮৯৪ জন শিক্ষার্থী। বিপরীতে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল কলেজগুলোতে আসন রয়েছে প্রায় ৫০ হাজার। এর বাইরে রয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ও ফাজিল মাদ্রাসা।

এবার আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড এবং মাদ্রাসা ও কারিগরি বোর্ডে মোট পাস করেছেন ৭ লাখ ৩৮ হাজার ৮৭২ জন। এর মধ্যে এইচএসসিতে পাস করেছেন ৫ লাখ ৭৭ হাজার ৮৭ জন।

এটিও পড়ুন Admission test এর সম্ভাব্য তারিখসমূহ

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি), স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির হিসাব অনুযায়ী, এবার উচ্চশিক্ষায় ভর্তিযোগ্য আসন প্রায় সাত লাখ। এর মধ্যে জাতীয় ও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় বাদে শুধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আসন আছে ৪২ হাজার ৯৮৪টি। সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলোতে আসন আছে ৯ হাজার ১১২টি।

অন্যদিকে এবার শুধু এইচএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৩৪ হাজার ৭২১ জন। বিজ্ঞানে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ২৬ হাজার ৫৫৬ জন। মেডিকেল কলেজ, প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো ছাড়াও পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের জন্য কয়েক হাজার আসন রয়েছে। ভর্তি পরীক্ষার সময় এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ফলের ওপর ভিত্তি করে পয়েন্ট ভর্তি পরীক্ষার নম্বরের সঙ্গে যোগ হয়।

জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীদের চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়-মেডিকেলে আসন বেশি
Read More »

Get post by Email

copyright 2014-2020@bdtipstech DMCA.com Protection Status