Ads By Blogger

Saturday, September 16, 2017

১০ টি সোশ্যাল বুকমারকিং সাইট আপনার ওয়েবসাইট এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ

হ্যালো বন্ধুরা কেমন আছেন সাবাই আশা করি সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা যে টপিক টা নিয়ে আলোচনা করব সেটা হলো সোশ্যাল বুকমারকিং সাইট নিয়ে। বর্তমান সময়ে ওয়েব জগতে সোশ্যাল বুকমারকিং আপনার ওয়েবসাইট এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারন এর মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইট এর প্রসার ঘটাতে পারেন। তো চলুন এরকমি সেরা ১০ টি সোশ্যাল বুকমারকিং সাইট এর সাথে আমরা আজ পরিচিত হব।
১। Delicious.com
Delicious.com এই সোশ্যাল বুকমারকিং সাইট খুবই ভালো একটি সাইট। এখানে আপনি আপনার ওয়েবসাইট এর সকল কিছু এখানে শেয়ার করতে পারেন। Delicious.com সাইট টা টপ লেবেলের একটি বুকমারকিং সাইট। যেখানে আপনার মনের মত করে সব কিছু করতে পারেন
এখন যে সোশ্যাল বুকমারকিং সাইটির সম্পর্কে আমরা জানব সেটা হল Stumbleupon.com এই বুকমারকিং ওয়েবসাইটি খুবিই জনপ্রিয় একটি সোশ্যাল সাইট। এখানে আপনি নানা ভাবে আপনার ওয়েব সাইটের প্রচার করতে পারেন। আশা করি আপনাদের এই সোশ্যাল সাইট টা ভাল লাগবে।
৩। Digg.com
Digg.com এই সোশ্যাল বুকমারকিং সাইটা বেশ পুপুলার একটি বুকমারকিং সাইট এখানে আপনি আপনার নিজস্ব মতামত প্রকাশ করতে পারেন এবং অনেক গুরুত্বপূর্ণ সব সামাজিক তথ্য সবাই এখানে প্রকাশ করে।
৪। Reddit.com
রেডিট ডট কম একটি খুব জনপ্রিয় সোশ্যাল বুকমারকিং সাইট। অনেক লোক এই সাইটি ব্যাবহার করেন তাদের ওয়েব এর প্রচার করার জন্য। এবং এই সাইটি থেকে আপনি অনেক ভিজিটর পাবেন আপনার নিজের ওয়েবসাইটে।
গুগল বুকমার্ক একটি জনপ্রিয় সোশ্যাল বুকমারকিং সাইট খুব বেশি এটা ব্যাবহার করে থাকে টেক প্রেমিরা আপনি ও আপনার ওয়েব সাইট এর জন্য এখানে কাজ করতে পারেন।
৬। Fark.com
Fark.com একটি জনপ্রিয় সোশ্যাল বুকমারকিং সাইট। এই সাইটে আপনি খুব ভালো ভাবে আপনার ওয়েব এর কাজ করতে পারেন এবং মার্কেটিং করতে পারেন
৭। Faves.com
এখন যে সোশ্যাল বুকমারকিং সাইট এর সম্পর্কে জানব এটা খুব পপুলার একটি বুকমারকিং সাইট। আপনার যে কোন ধরনের অনলাইন মার্কেটিং এর জন্য এখানে কাজ করতে পারবেন।
৮। Diigo.com
Diigo.com বর্তমান সময়ে অনেক ভাল একটি বুকমারকিং সাইট আপনার ওয়েব সাইটের প্রচার কিংবা প্রসার করার জন্য সামাজিক যে কয়টি মাধ্যম আছে এর ভিতর Diigo.com একটি অন্যতম। আপনি চাইলে এখানে কাজ করতে পারেন
৯। Icerocket.com
এখন যে সোশ্যাল বুকমারকিং সাইটির কথা আমরা জানব সেটা হলো Icerocket.com এই বুকমারকিং সাইটা বেশ নাম করেছে।এখানে আপনি আপনার ওয়েবসাইট এর প্রচার করতে পারেন।
১০। aol.com
সবশেষে আমরা যে সোশ্যাল বুকমারকিং সাইটের নামটা জানলাম সেটা হলো aol.com এই সাইটের ভিতর আপনি নানা ধরনের তথ্য পাবেন। আপনার লাইফ স্টাইল, বিনোদন, খেলাধুলা সহ আরো অনেক কিছু তো আপনি চাইলে এখানে এসে জয়েন করে আপনার ওয়েব সাইটির প্রচার করতে পারেন
আজ আর নয় আশা করি আপনাদের সকলের কাছে সোশ্যাল বুকমারকিং সাইটের কিছু পরিচিতি দিতে পেরেছি এবং আগামি আরো ভালো কিছু নিয়ে সবার সামনে হাজির হতে পারব সবাই ভালো থাকবেন


Read More »

Monday, July 24, 2017

কিভাবে ব্লগের কমেন্টে হাইপার লিংক ডিজেবল করবেন (ব্লগের সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন পার্ট-২)


Bd bangla blog এ আপনাদের স্বাগতম।আশাকরি সবাই ভাল আছেন।আজ আপনাদের সাথে ব্লগার নিয়ে একটা টিপ্স শেয়ার করবো।অনেকে হয়তো নিজের ব্লগে স্প্যাম কমেন্ট পেতে পেতে বিরক্ত হয়ে গেছেনএছাড়া নিম্ম মানের লিংক কমেন্ট করার ফলে আপনার সাইটের এসইও তে প্রভাব ফেলে।তাই অনেকে হয়তো কমেন্টে হাইপার লিংক ডিজেবল করে দিতে চাচ্ছেন।
এর জন্য প্রথমে আপনার ব্লগে প্রবেশ করে টেম্পলেট এ ক্লিক করুন।তারপর আপনার ব্লগের ফুল টেম্পলেটটি ব্যকআপ নিয়ে,যাতে অসাবধনতায় কোন প্রবলেম না হয়।কিভাবে ব্যকআপ নিতে হয় না জানলে 
 ব্লগার এসইও নিয়ে সবগুলি টিউটোরিয়াল দেখুন ব্লগার এসইও টিউটোরিয়াল-বিডি টিপ্স টেক
 
কিভাবে ব্লগের কমেন্টে হাইপার লিংক ডিজেবল করবেন
কিভাবে ব্লগের কমেন্টে হাইপার লিংক ডিজেবল করবেন -bd tips tech
ব্লগার Template-কে আকর্ষণীয় ডিজাইন করার জন্য যা যা প্রয়োজন,কিভাবে আপনার ওয়েব সাইটে ভিজিটর বাড়াবেন,bd bangla blog,bd techtunes,techtunes bangla,bd tricks,trickbd bangla,ব্লগ ডিজাইন কোড,ব্লগিং করে আয়,কিভাবে ব্লগার হওয়া যায়,ব্লগার এর অর্থ কি,ব্লগার কি,ব্লগ খোলার নিয়ম,কিভাবে ব্লগের কমেন্টে হাইপার লিংক ডিজেবল করবেন,বিডি টিপ্স টেক

এবার Edit html এ ক্লিক করুন।।তারপর Ctrl+F চেপে খুজুন </head>
</head>  কোডটি খুজে পেলে তার উপরে নিচের কোডটি পেস্ট করুন


<script type="text/javascript" src="http://ajax.googleapis.com/ajax/libs/jquery/1.10.2/jquery.min.js" />


এবার খুজুন </body> , খুজে পেলে </body> এর উপরে নিচের কোডটি পেস্ট করুন


<script type="text/javascript">
$("#comments p a").each(function () {
    $(this).replaceWith($(this).text());
});
</script>



সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে সেভ করে ফেলুন।এবার ব্লগের কোন পোস্টে যদি লিংক কমেন্ট করা থাকে দেখুন শুদু টেক্সট অকারে দেখাচ্ছে অথবা একটি লিংক কমেন্ট করে দেখুন।ধন্যবাদ।
 

যেকোনো প্রয়োজনে আমরা আছি
আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ bd tech group
ফেইসবুক পেইজ bd tips tech
ইউটিউব চ্যানেল Youtube channel
Read More »

কিভাবে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটকে গুগল সার্চ ইঞ্জিনে সাবমিট করবেন (ব্লগের সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন পার্ট-১)

(bd tips tech)বিডি টিপ্স টেক আপনাদের স্বাগতম।আশাকরি সবাই ভাল আছেন।ব্লগিং করতে হলে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন খুবই দরকার।গুগল বর্তমানে নাম্বার ওয়ান সার্চ ইঞ্জিন সাইট।এখানে প্রতিদিন প্রচুর লোক তাদের দরকারি জিনিস খোজ করে থাকে।তাই গুগল ব্লগকে সাবমিট
করে গুগল থেকে প্রচুর ভিজিটর পেতে পারেন।তাহলে আসুন জেনে নেয়া যাক কিভাবে গুগলে আপনার ব্লগকে সাবমিট করবেন।
ব্লগার এসইও নিয়ে সবগুলি টিউটোরিয়াল দেখুন ব্লগার এসইও টিউটোরিয়াল-বিডি টিপ্স টেক 

কিভাবে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটকে গুগল সার্চ ইঞ্জিনে সাবমিট করবেন
Add কিভাবে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটকে গুগল সার্চ ইঞ্জিনে সাবমিট করবেন
গুগলে আপনার ব্লগ পোস্ট ইনডেক্স করুন ২ মিনিটে,কিভাবে আপনার ব্লগকে Google Webmaster Tool এ সাবমিট     
 গুগলে আপনার ব্লগ পোস্ট ইনডেক্স করুন ২ মিনিটে,কিভাবে আপনার ব্লগকে Google Webmaster Tool এ সাবমিট করবেন,কিভাবে আপনার ওয়েব সাইটে ভিজিটর বাড়াবেন,কিভাবে আপনার ওয়েবসাইট গুগলে সাবমিট করবেন,কেমন করে আপনার ব্লগ বা ওয়েব সাইট কে Search Engine এ Submit করবেন,bd bangla blog,bd techtunes,techtunes bangla,bd tricks .trickbd bangla
এটি দেখুন আপণার ব্লগে যোগ করুন feature post widget

কীভাবে সাবমিট করবেন

১ম ধাপ

প্রথমে আপনাকে যেতে হবে গুগল ওয়েবমাষ্টার টুলস এ।এখন আপনি আপনার জিমেইল এ্যকাউন্ট দিয়ে সাইন ইন করুন।
সাইন ইন করার পর আপনার সামনে গুগল ওয়েবমাষ্টার টুলস এর হোম পেজ আসবে।

এখান থেকে আপনি
Add a site. ক্লিক করে আপনার সাইটের লিংক দিয়ে Continue করুন
কিভাবে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটকে গুগল সার্চ ইঞ্জিনে সাবমিট করবেন -2
কিভাবে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটকে গুগল সার্চ ইঞ্জিনে সাবমিট করবেন -2


এটিও দেখুন blog এযুক্ত করুন moving facebook,feeburner,Twitter গাড়ি

২য় ধাপ

এবার আপনার সামনে Verify ownership পেজ আসবে।এটা সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ন ধাপ।এ ধাপে আপনাকে আপনার সাইটের Index ফাইলে গুগলের মেটা Verify করতে হবে।এই পেজে আপনি একটা মেটা ট্যাগ পাবেন।এই মেটা ট্যাগটি আপনার সাইটের Index পেজের head ট্যাগের মধ্যে এবং ১ম body ট্যাগের আগে বসাতে হবে।alternet method এ ক্লিক করুন তাহলে একটি কোড পাবেন।নিচের চিত্র্টি দেখুন
কিভাবে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটকে গুগল সার্চ ইঞ্জিনে সাবমিট করবেন -3
কিভাবে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটকে গুগল সার্চ ইঞ্জিনে সাবমিট করবেন -3

এবার  আপনার ব্লগে লগইন করে templet এ ক্লিক করুন এবার edit html এক্লিক করে  cntrl+f চেপে সার্চ করুন <head> এবং এর নিচে কোড গুলি পেস্ট করে সেভ এ ক্লিক করুন।

৩য় ধাপ

এবার আপনার সাইটে মেটা ট্যাগ Verify করার পর আপনি Verify ক্লিক করুন।সব ঠিক থাকলে আপনার সাইট গুগলে Verify হবে।Verify হবার পর আপনার সাইটের একটা Dashboard আসবে।এখানে আপনি আপনার ব্লগে সকল তথ্য দেখতে পাবেন।এড করার ২-৩দিন পর আপনার ব্লগ গুগলে সার্চ দিলে পাওয়া যাবে।আশাকরি সবাই বুঝতে পেরেছেন না বুঝতে পারলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।




Read More »

Friday, July 21, 2017

১১ টা SEO টেকনিক 2017 তে আপনার জানা খুবই জরুরী

সার্চ ইঞ্জিন প্রতিনিয়ত আপডেট হচ্ছে তাই মার্কেটারদের এর সাথে চলতে হলে অবশ্যই তাদের দক্ষতা বাড়াতে হবে। রিপোর্ট অনুযায়ী লিঙ্ক সার্চ করে ব্যবহার কারীর ক্লিকের ৭০% আসে SEO থেকে! আবার, inbound leads (SEO) এর খরচ outbound leads (বিজ্ঞাপন) থেকে ৬১% কম।
এখন আপনি বুঝতে পারছেন SEO হলো সাফল্যের চাবি, এখানে ১১ টি SEO কৌশল দেয়া হলো যা আপনাকে ২০১৫ তে অবশ্যই জানতে হবে।
১। অবিশ্বাস্য কন্টেন্ট তৈরি করতে হবে যা লিঙ্ক অর্জন করবেঃ সার্চ ইঞ্জিন এলগরিদমের সাথে সব কিছু পরিবর্তনের পরও সার্চ ইঞ্জিনের সাথে সব চেয়ে বড় প্রভাব রয়েছে ইনবাউন্ড SEO লিঙ্কে। অপরদিকে লিঙ্ক অর্জনের অন্য পদ্ধতিগুলো পরিবর্তিত হয়েছে। কোন উঁচু মানের প্রাসঙ্গিক ওয়েব সাইট থেকে লিঙ্ক পাওয়া শুধু আপনার SEO এর সাহায্যে সম্ভব হবেনা। এর সাথে দরকার হবে রেফারেল ট্রাফিক, যা আরো বেশি বিক্রি ও ব্র্যান্ড এর পরিচিতি বাড়াবে।
অবিশ্বাস্য কন্টেন্ট তৈরি যা মানুষ শেয়ার করতে চাইবে তা এখনও লিঙ্ক আয়ের প্রধান উপায় আছে।
২। Co-Citation লিঙ্কঃ প্রতিবার সার্চ ইঞ্জিন আপনার ওয়েবসাইট কে আপনার প্রতদ্ধন্ধির পরেই পায়। এটা তাদের বলে যে আপয়ান্র কোম্পানি একই কুলঙ্গি বা বিষয়ের উপর। Co-Citation লিঙ্ক পেতে হলে “best” অথবা “top 10” দিয়ে আপনার সাইটের বিষয়ের উপর সার্চ করুন।
যেমনঃ টপ টেন ব্লু উইজেড আপনি যদি এই সার্চ করেন আর রিজাল্টে আপনার ব্যবসা না পান তাহলে পাবলিশারের সাথে যোগাযোগ করুন, এবং লিস্টে আপনার কোনপানি কে যোগ করার জন্য বলুন, কেন এবং কোথায় আপনার কোম্পানি এখানে যোগ হবে তার জন্য তৈরি হোন। কোন লিঙ্কের সাথে যেতে হলে তাদেরকে সারমর্ম দিন।
৩। এডিটোরিয়াল লিঙ্কঃ এডিটোরিয়াল লিঙ্ক গুলো আপনার SEO এর জন্য অনেক শক্তিশালি হয়ে আসে কারণ এগুলো অন্য পাবলিকেশন থেকে আপনার কোম্পানি উল্লেখ করে আপনার সাইটের বিষয়ের ভিত্তিতে আসে। তারা আবার লীডারশিপ গেস্ট পোস্ট থেকেও আসতে পারে, যা আপনি লিখে কোন তৃতীয় পক্ষের সাইটে পাবলিশ করেন।
এডিটোরিয়াল লিঙ্ক পাওয়ার সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি হলো এমন সব উন্নতমানের কন্টেন্ট তৈরি করা যা অন্যরা তাদের পাঠকের সাথে শেয়ার করবে। অন্য উপায় হলো উচুমানের আকারে গেস্ট পোস্ট করা আপনার সাইটের বিষয়ের উপর। অবিশ্বাস্য কন্টেন্ট তৈরি করতে প্রস্তুত হোন যা কঠিণভাবে পাবলিশের পূর্বে ভোট পরীক্ষিত হবে।
ইন্টারভিউ হলো এডিটোরিয়াল লিঙ্ক পাওয়ার আরেকটি পদ্ধতি।
৪। ব্রোকেন লিঙ্ক বিল্ডিং পদ্ধতিঃ এখানে আরেকটি হোয়াইট হ্যাট লিঙ্ক বিল্ডীং পদ্ধতি যা অনেক কার্যকরি হয়। এখানে আপনি আসলে পাবলিশারকে সাহায্য করছেন ব্রোকেন লিঙ্ক তৈরি করাতে, যা তাদের পাঠকের জন্য সাহায্যকারী হবে। এখানে তখনই কাজ হবে যখন আপনার কন্টেন্ট হারিয়ে যাওয়া কন্টেন্ট থেকেও অনেক শক্তিশালি হবে।
এই কাজের জন্য কোন সাইটের এমন ব্রোকেন লিঙ্ক খুজে বের করতে হবে যা আপনার সাইটের বিষয়ের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। এরপর আপনি ব্রোকেন লিঙ্ক নিয়ে ওয়েবমাস্টারের সাথে যোগাযোগ করে সুপারিশ করবেন যে আপনার সাইট বিকল্প এই ব্রোকেন লিঙ্ক এর। আরো জানতে মজ ব্লগ থেকে broken link-building Bible পড়ুন।
৫। Link Reclamation এটি আপনাকে ব্রোকেন লিঙ্ক খুজে বের করে ফ্রেশ লিঙ্ক পেতে সাহায্য করবে এবং পাবলিশারকে দিয়ে এগুলো সমাধান করাবে।
উদাহরণঃ আপনার সাইট সম্পর্কে উল্লেখ করা ব্র্যান্ড খুজে বের করুন, এবং পাবলিশারকে লিঙ্ক যোগ করতে বলুন।
এমন জায়গা খুজে বের করুন যেখানে আপনার কন্টেন্ট এট্রিবিউশন ছাড়া ব্যবহার করা হয়েছে, এবং সেই ব্যাক্তির নিকট লিঙ্ক রিকুয়েস্ট করুন।
একে স্বয়ংক্রিয় করতে আপনি Google Alert চালু করতে পারেন, যখনই আপনার কোম্পানি নাম উল্লেখ করবে তা ইমেইল করে জানানোর জন্য। এর পর আপনি চেক করে দেখতে পারেন তারা আপনার সাইটের সাথে লিঙ্ক দিয়েছে কি না।
৬। লিঙ্ক আউটরিচঃ এটি অনেকটা “old school” এর মত কিন্তু এখনো অনেক শক্তিশালি। এটি করতে এমন ওয়েবসাইট বের করুন যা আপনার ওয়েবসাইটের সাথে প্রাসঙ্গিক, এবং তাদের সাইট থেকে তাদের যোগাযোগ এর তথ্য সংগ্রহ করুন। তাদেরকে কল করুন বা ইমেইল করে ভদ্রভাবে লিঙ্ক এর জন্য বলুন। এটা ভালো কাজ করে যদি তাদের ব্যবসা আপনার ব্যবসা থেকে কিছুটা আলাদা হয় কিন্তু একই পাঠক শেয়ার করা যায়।
৭। প্রতিদ্বন্ধি বিশ্লেষণ করাঃ এটা নতুন কিছু নয়। কোম্পানিরা তাদের প্রতিদ্বন্ধির ওয়েবসাইট অনেক বছর থেকে গবেষণা করে আসছে। অধিকন্তু প্রতিদ্বন্ধির সাইটের ব্যাকলিঙ্ক এবং ম্যানুয়ালি রিভিউ করা যেসব লিঙ্ক রাখা অনেক মূল্যবান। এরপর আপনি লিঙ্ক আউটরিচ করতে পারেন একই সাইট থেকে লিঙ্ক পাওয়ার চেষ্টা করতে পারেন।
৮। কী-ওয়ার্ড রেঙ্কিং এর পরিবর্তে ROI এ মনযোগ দেয়া যদিও আমরা সবাই সার্চ রিজাল্ট রেঙ্কিং এ কী-ওয়ার্ড এর ফল উপভোগ করি এর দ্বারা এটা প্রমাণ হয়না যে আপনার SEO সফল হয়ে গেছে। অনেক কী-ওয়ার্ডের জন্য এটা সম্ভব কোন ROI না থাকা সত্ত্বেও নাম্বার এক এ যাওয়া। আপনাকে সেই মেট্রিক্স এ মনযোগ দিতে হবে যা কনভার্সেষন আনে।
৯। একটি SEO কৌশল তৈরি করুন যা শ্রোতাকে ম্যাপ করবেঃ গত কয়েক বছর ধরে আমরা গুগল এনালিটিক ও অন্যান্য টুল থেকে অধিকাংশ কীওয়ার্ড হারিয়ে ফেলেছি। এর জন্য জরুরী হয়ে পড়েছে SEO এর পুরণো সিস্টেম থেকে বেরিয়ে এসে শ্রোতাকে আকর্ষিত করার নতুন পদ্ধতি বের করা।
এর জন্য আমাদের অবশ্যই নতুন কী-ওয়ার্ডে মনযোগী হতে হবে। নতুন পদ্ধতিতে মার্কেটারদের প্রতিবেশি করা, এবং বের করা কোথায় SEO দিয়ে আমাদের মার্কেটিং সফল হচ্ছে এবং কীভাবে একে আরো ভালো করে তোলা যায়।
বাজে কন্টেন্টে কী-ওয়ার্ডের গাদাগাদি করে একে রেঙ্কে রাখার দিন অনেক আগেই ফুরিয়েছে। এখন আপনার কন্টেন্ট এর জন্য জরুরী এর টার্গেট করা ব্যাক্তিরা, কীওয়ার্ড হতে হবে কন্টেন্টের সাথে প্রাসঙ্গিক। এজন্যই বলা হয় কন্টেন্ট ও SEO একে অন্যের সাথে বাঁধা।
১০। Yahoo, Bing ও অন্যান্যের জন্য অপটিমাইজ করা Yahoo, Bing, এবং DuckDuckGo এর মত সার্চ ইঞ্জিনরা কম কম করে গুগলের অনেক বড় টুকরো ২০১৬ তে নিয়ে নিতে পারে। Yahoo হলো ফায়ারফক্সের ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিন, Safari গুগলের সাথে ডিল করে যা মনে করা হচ্ছে ২০১৬ তে শেষ হয়ে যাবে। এবং ইয়াহু ও বিং চাচ্ছে এখানে ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিন হওয়ার জন্য।
যেহেতু অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিন গুগলের পরিবর্তে ডিফল্ট হয়ে যাচ্ছে তাই সেইসব সার্চ ইঞ্জিনের জন্যও অপটিমাইজ করা বুদ্ধিমানের কাজ হবে।
১১। মোবাইল SEO মোবাইল প্রতি বছর আরো বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠছে, ২০১৬ বা এর পরে অবশ্যই প্রতিটি ওয়েবসাইটের মোবাইলের জন্য আলাদা কৌশল থাকতে হবে।
মোবাইল হতে হবে ২০১৬ এর SEO পরিকল্পনার এর সিংহঅংশ। তবে আপনাকে সতর্ক হতে হবে যেহেতু কনফিগারেশন এরর এর জন্য ৬৮ ভাগ ট্রাফিক লস হয়।
উপসংহারঃ SEO কৌশল তৈরি আপনার কোম্পনি ও ব্র্যান্ডকে সার্চ ইঞ্জিনে উন্নতি দিতে পারে, কেন আপনার ROI আজই উন্নত করছেন না?




                                         >>>>ঘুরে আসুন আমার সাইট থেকে <<<< 
Read More »

Get post by Email

copyright 2014-2020@bdtipstech DMCA.com Protection Status