Ads By Blogger

Ads By Bdtipstech

Friday, February 08, 2019

মজিলা ফায়ারফক্স, গুগল ক্রোম নাকি অপেরা।কোনটি বেস্ট ?

বিডি টিপ্স টেকে আপনাদের স্বাগত ম। ওয়েব ব্রাউজার হচ্ছে পিসির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান গুলোর একটি। আপনি যদি গ্রাফিক্স অথবা এডিটিং এর মতো কাজগু‌লো‌তে সময় না কাটান, তাহলে আপনার ব্রাউজারেই অধিকাংশ সময় কাটানোর সম্ভবনা বেশি। এজন্য একটা ভালো মানের ব্রাউজার বেছে নেয়া অনেকটাই গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়। আজকে আমরা সবচেয়ে প্রচলিত সেরা তিনটি ব্রাউজারের মধ্যে তুলনা করবো। আর জানার চেষ্টা করবো সেরাদের মধ্যে সেরা কে। (বিশেষ দ্রষ্টব্য : এই রিভিউতে আমি সবগুলো ব্রাউজারের লেটেস্ট ভার্সন ব্যবহার করেছি। পুরাতন ভার্সন ব্যবহারের জন্য পারফরমেন্সের তারতম্য হতে পারে। ) 
মজিলা ফায়ারফক্স, গুগল ক্রোম নাকি অপেরা-বিডি টিপ্স টেক
মজিলা ফায়ারফক্স, গুগল ক্রোম নাকি অপেরা-বিডি টিপ্স টেক


যেসব কারণে আপনি ক্রোম ব্যবহার না করে ফায়ারফক্স ব্যবহার করবেন গুগল ক্রোম ব্রাউজারের সেরা ১২ টি এক্সটেনশন যা ইউজ করলে অবাক হবেন কেন আপনি গুগল ক্রোম বাদ দিয়ে মজিলা ফায়ারফক্স ব্যবহার করবেন গুগল ক্রোম, মজিলা ফায়ারফক্স অফলাইন ইন্সটল এবং কিছু টিপস মজিলা ফায়ারফক্স, গুগল ক্রোম, অপেরা, সাফারী অনেক ব্যাবহার করেছেন  মোবাইল ব্রাউজার মজিলা ফায়ারফক্স,সাফারি,গুগুল ক্রোম আপনার গুগল ক্রোম ও মজিলা ফায়ারফক্স থেকে কিভাবে কুকি ডিলিট করবেন 


১. স্পিড এবং পারফরমেন্স : আমরা সাধারণ মাানুষেরা প্রথমে যে জিনিসটা দেখি সেটা হলো একটা ব্রাউজারের স্পিড এবং সেটার পারফরমেন্স। ব্রাউজারের স্পিড টেস্ট করার জন্য প্রচলিত তিনটি পরীক্ষা হলো JetStream, Kraken এবং RoboHornet. এই তিনটিতেই গুগল ক্রোম অন্য দুটি থেকে অনেকখানি এগিয়ে আছে। স্পিড এবং পারফরমেন্সের বিচারে ক্রোমের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছে ফায়ারফক্স। স্পিড এবং পারফরমেন্স বিজয়ী : গুগল ক্রোম

 ২. ইউজার ইন্টারফেস এবং কাস্টমাইজেশন : তিনটা ব্রাউজারের ইউজার ইন্টারফেসই তুলনামূলক ভালো। ক্রোমের ক্ষেত্রে বলা যায় এটা ফ্রেশ এবং ইউজার ফ্রেন্ডলি। তবে ক্রোমে কাস্টমাইজেশন সুবিধা তেমনটা নেই। মজিলা ফায়ারফক্সের ইন্টারফেস ক্রোমের মতো না হলেও এটার রয়েছে অসাধারণ কাস্টমাইজেশন সুবিধা। আপনি থিম পরিবর্তন করা থেকে শুরু করে সবকিছুই নিজের মতো সাজিয়ে নিতে পারবেন। মজিলা এদিক থেকে ক্রোমের চাইতে অনেক এগিয়ে আছে। অপেরাতে কাস্টমাইজেশনের সেরকম সুবিধা না থাকলেও এটার ইন্টারফেস একদম ফেলনা নয়। ইউজার ইন্টারফেস এবং কাস্টমাইজেশন বিজয়ী : মজিলা ফায়ারফক্স

 ৩. সিকিউরিটি : অধিকাংশ ব্যবহারকারী ব্রাউজারের নিরাপত্তার দিকে নজর দেয় না। যার ফল হাতেনাতে ভোগ করতে হয় ভাইরাস অথবা ম্যালওয়ারের আক্রমনের স্বীকার হয়ে। এছাড়া ব্রাউজার থেকে ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য বেহাত হওয়ার মত বিপত্তি তো আছেই। ক্রোম এক্ষেত্রে খুব ভালো একটা সমাধান হতে পারে আপনার জন্য। ক্ষতিকর সাইট, ফিসিং সাইট, ম্যালওয়ার অথবা ট্রোজান আক্রান্ত সাইটগুলি খুব ভালোভাবে ক্রোম ব্লক করে দিতে পারে। মজিলাও এক্ষেত্রে অনেকখানি এগিয়ে আছে, তবে অপেরা নিরাপত্তার দিক দিয়ে ক্রোম থেকে অনেকখানি পিছিয়ে। সিকিউরিটি সেকশনের বিজয়ী : গুগল ক্রোম 

৪. প্রাইভেসি : আমরা বাংলাদেশীরা আমাদের প্রাইভেসি নিয়ে খুব একটা মাথা ঘামাই না। কিন্তু ইউরোপীয়ান অথবা অামেরিকান দেশ গুলো তাদের প্রাইভেসি সম্পর্কে যথেষ্ট সচেতন। গুগলের বিরুদ্ধে তাদের ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্যের ব্যবহার নিয়ে অনেক আগে থেকেই অভিযোগ ছিলো। সম্প্রতি আরেকটি বিষয় উঠে এসেছে। আমরা সবাই জানি প্রায় প্রতিটা ব্রাউজারেই সিক্রেট মোড বা প্রাইভেট ব্রাউজিং নামের একটা অপশন থাকে। যেখান থেকে আপনি যাই করেন না কেন, ব্রাউজার বন্ধ করার সাথে সাথে সেগুলোর ব্রাউজিং হিস্টরি অথবা কুকিজ মুছে যায়। কিন্তু গুগলের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিলো তারা তাদের ব্যবহারকারীদের প্রাইভেট মোডে ব্রাউজ করা তথ্যাদিও তারা তাদের সার্ভারে সংরক্ষণ করে রাখছে। যেটার দ্বারা খুব সহজেই আপনার প্রাইভেট জিনিসগুলোর ওপর গুগল নজরদারি চালাতে পারে। কিন্তু এক্ষেত্রে মজিলা ফায়ারফক্স অনেক এগিয়ে। মজিলা সম্পূর্ণরূপে ওপেন সোর্স হওয়ায় তাদের নিয়ে এ ধরনের কোন ঝুঁকি নেই। অপেরার বিরুদ্ধেও ব্যবহারকারীদের তথ্য অপব্যবহারের কোন অভিযোগ নেই। তবে মজিলা ওপেন সোর্স হবার কারনে, প্রাইভেসি সেকশনে মজিলাই এগিয়ে। প্রাইভেসি সেকশনে বিজয়ী : মজিলা ফায়ারফক্স

 ৫. এক্সটেনশন : কয়েকটি ব্রাউজারের মধ্যে তুলনা করতে গেলে আরো অনেকগুলি জিনিস বিবেচনা করতে হয়। যেমন একটি হচ্ছে এক্সটেনশন। ক্রোমের ওয়েব স্টোর হচ্ছে এক্সটেনশনের একটা সমুদ্র। বিপুল পরিমাণ অসাধারণ কিছু এক্সটেনশন নিয়ে ক্রোম রয়েছে সবার আগে। মজিলার ক্ষেত্রে এক্সটেনশনকে বলে অ্যাড অন। মজিলার অ্যাড অন যথেষ্ট আছে, তবে ক্রোমের মতো বিপুল পরিমাণ না। আর অপেরা প্রথমে এদিকে অনেক পিছিয়ে ছিলো। কিন্তু নতুন একটা আপডেট আর নতুন একটা এক্সটেনশন আসার পর সেটার মাধ্যমে ক্রোম ওয়েব স্টোরের সবগুলো এক্সটেনশন (হ্যাঁ, আপনি ঠিকই পড়েছেন, গুগল ক্রোমের সবগুলো এক্সটেনশন ) অপেরাতে ব্যবহার করা যায়। যেহেতু এগুলো অপেরার নিজস্ব এক্সটেনশন না, তাই এক্ষেত্রে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে ক্রোম। এক্সটেনশন বিজয়ী : গুগল ক্রোম 

৬. অন্যান্য : অন্যান্য বিষয় গুলোর মধ্যে রয়েছে পপ আপ এবং অ্যাড ব্লক। গুগল ক্রোম এবং মজিলা ফায়ারফক্স এক্ষেত্রে অনেকটাই এগিয়ে অপেরার চাইতে। আবার অপেরার কিছু ফিচার রয়েছে যেমন বিল্ট ইন ভিপিএন, বিল্ট ইন মেসেন্জার এবং হোয়াটসঅ্যাপ। যেগুলো আপনি গুগল ক্রোম কিংবা মজিলা ফায়ারফক্সে পাবেন না। আরেকটি জিনিস হলো সিনক্রোনাইজেশন। গুগল ক্রোম এক্ষেত্রে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে। ব্রাউজারে সাইন ইন করা থাকলে আপনি যেকোন ডিভাইস থেকে আপনার বুকমার্ক, হিস্ট্রি দেখতে পারেন। ক্রোমের আরো একটা আকর্ষণীয় ফিচার রয়েছে। বিল্ট ইন ট্রান্সলেশন। আপনি ওয়েব ব্রাউজ করতে করতে বিদেশী ভাষার কোন পেজে চলে গেলে ক্রোম আপনাকে অটোমেটিক পছন্দ মত একটা ভাষায় সেই পেজ দেখার সুযোগ করে দেয়।

 অন্যান্য সেকশনে বিজয়ী : গুগল ক্রোম ফলাফল : ফলাফল সম্পূর্ণ আপনার হাতে। আপনি যদি আপনার প্রাইভেসি নিয়ে খুব বেশি উদ্বিগ্ন না হন, তাহলে গুগল ক্রোম ১ নম্বর। আর যদি আপনার প্রাইভেসি আপনার নিকট একটি স্পর্শকাতর বিষয় হয়, তাহলে Mozilla Firefox is the best.

যেকোনো প্রয়োজনে আমরা আছি
আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ bd tech group
ফেইসবুক পেইজ bd tips tech
ইউটিউব চ্যানেল Youtube channel

2 comments:

আমাদের পোস্টগুলি ভালো লাগলে কমেন্ট করে আমাদের উৎসাহ দিন

Get post by Email

copyright 2014-19@bdtipstech DMCA.com Protection Status