ads by bdtipstech

সোমবার, ফেব্রুয়ারী ১৮, ২০১৯

আপনার ব্লগ বা ওয়েব সাইড সহ পোষ্ট গুলো গুগলে পরিচয় করিয়ে দিন

আশা করি সবাই ভাল আছেন। যে বিষয়ে বলছিলাম বিষয় টি হল,আমারা অনেকেই ওয়েব সাইড অতবা ব্লগে অনেক পোষ্ট করার পর ও গুগলে সার্চ করে খুঁজে পাইনা,যেমন আপনি একটি পোষ্ট করলেন শিরোনাম হল (চোঁখ রাখুন ভিজিটর টিউন ডট কমে) অতচ ঐ পোষ্টের ঐ শিরোনাম দিয়ে গুগলে সার্চ করলেন কিন্তু খুঁজে পেলেন না,এমন যদি হয় তা হলে গুগলের মাধ্যমে আপনার ব্লগ বা ওয়েব সাইডে ভিজিটর পাওয়া যাবেনা,আপনি নিজেই পোষ্ট করে নিজেই পড়তে তাকবেন,এতে কি লাভ হল,কারণ ভিজিটর ছাড়া ওয়েব সাইড বা ব্লগের কোন মূল্য নেই,চলুন দেখি আপনার ওয়েব সাইড ও ব্লগে সহ এবং পোষ্ট গুলো কিভাবে গুগলে পরিচয় করবেন,সার্চ করা মাত্র যেহেতু দেখা যায়।প্রথমে এই লিস্কস এ ক্লিক করুন নিচের মত একটি পেজ উইনডো হবে
এবার উপরের ছবির মত ADD A SIDE এ ক্লিক করুন  নিচের মত একটি পেজ উইনডো হবে 
এবার উপরের ছবির মত আপনার ব্লগ বা ওয়েব সাইডের URL দিয়ে Continue এ ক্লিক করুন  নিচের মত একটি পেজ উইনডো হবে সেখানে ডন পাশে লক্ষ্য করুন
এবার উপরের ছবির মত  Crawl এ ক্লিক করুন  নিচের মত একটি পেজ উইনডো হবে
 এবার উপরের ছবির মত  Fetch as Google এ ক্লিক করুন  নিচের মত একটি পেজ উইনডো হবে সেই পেজে
আমরা আগে নিজের ব্লগ বা ওয়েব সাইড গুগলে পরিচয় করব।
এবার উপরের ছবির মত  FETCH AND RENDER এ ক্লিক করুন  নিচের মত একটি পেজ উইনডো হবে
এবার উপরের ছবির মত Submit to index এ ক্লিক করুন  নিচের মত একটি পেজ উইনডো হবে
এখন থেকে আপনার  নিজের ব্লগ বা ওয়েব সাইড গুগলে সার্চ করলে যে কেউ খুঁজে পাবে।
গুগলে পোষ্ট পরিচয় করার নিয়ম একটু মাত্র ভিন্ন তবে কাজের বৈশিষ্ট একই রকম
যেমন নিজের ব্লগ বা ওয়েব সাইড গুগলে সার্চ এ পরিচয় করার জন্য আমরা উপরের ছবির মত FETCH AND RENDER ব্যবহার করে ছিলাম,এখন যখন আমরা পোষ্ট পরিচয় করব সে জন্য শুধু FETCH  এ ক্লিক করব ক্লিক করার আগে যে পোষ্ট পরিচয় করতে চান সেই পোষ্টের লিস্কস  নিচের মত
http://www.visitortunes.com/2015/03/2995-idm.html হয় তাহলে লাল করা লিস্কস বাদ দিয়ে শুধু
2015/03/2995-idm.html লিখে FETCH এ ক্লিক করুন,অন্য ধাপ গুলো আগের মত
কোন কিছু সমস্যা হলে কমেন্ট করত ভুলবেন না। 

Read More »

বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ১৪, ২০১৯

খুব সহজে ওয়েবসাইট তৈরি(পর্ব-১০)ব্লগের পোস্টের টাইটেলের নিচে যুক্ত করুন পোস্ট ভিউ কাউণ্টার

Bd tips tech এ আপনাদের স্বাগতম।আশাকরি সবাই  ভাল আছেন।খুব  সহজে ওয়েবসাইট তৈরির দশম পর্বে আজ আপনাদের দেখাবো কিভাবে ব্লগের প্রতিটি পোস্টের নিচে পোস্ট ভিউ কাউন্টার যুক্ত করা যায়।

এটি যুক্ত করলে আপনার ব্লগে কোণ পোস্ট কত বার দেখা হয়েছে তা জানতে পারবেন।
পোস্ট ভিউ কাউন্টার
পোস্ট ভিউ কাউন্টার

তো চলুন দেখে আসি এটি কিভাবে ব্লগে যুক্ত করবেনঃ

প্রথমে আপানার একটি  Firebase Account লাগবে।https://www.firebase.com/  ক্লিক করুনএরপর ফর্ম ফিলাপ করে সাইন আপ করুন, এবং Create New App ক্লিক করুনএরপর আপনার পছন্দ মতো নাম দিন (যেমন  আমি দিয়েছি https://bdtipstech.firebaseio.com)এটি কপি করে রেখে দিন কাজে লাগেব।

এবার ব্লগে লগ ইন করুনতারপর Blogger > Template থেকে Template টিকে Backup নিন

এরপর  edit html  অপশনে ক্লিক করুন এরপর ]]></b:skin> লিখে সার্চ করুন  এরপর নিচের কোডটি ]]></b:skin> এর উপরে পেস্ট করুন



/*-------- Post Views  ----------*/

#views-container {

width: 85px;

float: right;

}

.mbtloading {

background: url('http://4.bp.blogspot.com/-PZMStRDcchY/USOp3xFp4yI/AAAAAAAAJOo/rm5FSsaSKh0/s320/mbtloading.gif') no-repeat left center;

width: 16px;

height: 16px;

}

.viewscount {

float: right;

color: #EE5D06;

font: bold italic 14px arial;

}

.views-text {

float: left;

font: bold 12px arial;

color: #333;

}

.views-icon{

background: url('http://4.bp.blogspot.com/-_dXedKDHIws/USOp369zEPI/AAAAAAAAJOs/Cv3fTZUaBTU/s1600/postviews.png') no-repeat left;

border: 0px;

display: block;

width: 16px;

height: 16px;

float: left;

padding: 0px 2px;

}

Get code
কাস্টমাইজেসন- চাইলে #EE5D06 এবং right কে left তে পরিবর্তন করে নিতে পারেন

এরপর </body>  লিখে সার্চ করুন এবং তার উপরে নিচের JavaScript কোডটি পেস্ট করুন

<!-- Post Views Script by bdtt -->

<script type='text/javascript'>

    window.setTimeout(function() {

        document.body.className = document.body.className.replace(&#39;loading&#39;, &#39;&#39;);

      }, 10);

  </script>

<script src='https://cdn.firebase.com/v0/firebase.js' type='text/javascript'/>

<script>

$.each($(&#39;a[name]&#39;), function(i, e) {

var elem = $(e).parent().find(&#39;#postviews&#39;).addClass(&#39;mbtloading&#39;);

var blogStats = new Firebase(&quot;https:/bdtipstech.firebaseio.com/pages/id/&quot; + $(e).attr(&#39;name&#39;));

blogStats.once(&#39;value&#39;, function(snapshot) {

var data = snapshot.val();

var isnew = false;

if(data == null) {

data= {};

data.value = 0;

data.url = window.location.href;

data.id = $(e).attr(&#39;name&#39;);

isnew = true;

}

elem.removeClass(&#39;mbtloading&#39;).text(data.value);

data.value++;

if(window.location.pathname!=&#39;/&#39;)

{

if(isnew)

blogStats.set(data);

else

blogStats.child(&#39;value&#39;).set(data.value);

}

});

});

</script>


এরপর  highlighted  করা অংশটি পরিবর্তন করে নিজের তৈরি করা URL টি টাইপ করুন

এরপর নিচের কোডটি খুঁজুন <data:post.body/>

উপরের কোডটি বার বার  থাকতে পারে, তাই দ্বিতীয়টিতে ট্রাই করবেনএরপর নিচের কোডটি তার উপরে পেস্ট করুন

<!-- Post Views Counter by bdtt-->
<div id='views-container'><span class='views-icon'/><div class='views-text'>Views:</div> <div class='mbtloading viewscount' id='postviews'/></div>
Get code

সবশেষে <head> এর নিচে , নিচের দেওয়া কোডটি পেস্ট করুন

<script src='http://ajax.googleapis.com/ajax/libs/jquery/1/jquery.min.js' type='text/javascript'></script>
Get code

উপরের কোডটি যদি আগে এড করা থকে তাহলে এড করার প্রয়োজন নেই
এবার সেভ ক্লিক করুনএবার আপনার ব্লগে গিয়ে দেখুন।কোন সমস্যা হলে কমেন্ট করুন ধন্যবাদ
Read More »

মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ১২, ২০১৯

অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্রে তথ্য হালনাগাদ

বিডি টিপ্স টেকে সবাইকে আবারো স্বাগতম।নিত্যদিনের নানা কাজে ভোটার আইডি বা জাতীয় পরিচয়পত্রের ব্যবহার দিন দিন বাড়ছে। ২০০৮ সালে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন দেশের সব প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিককে প্রথমবারের মতো ছবিসহ জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়। একই সঙ্গে ভোটার তালিকাও হালনাগাদ করা হয়। দেশব্যাপী এই প্রকল্প পরিচালনা এবং তথ্য সংরক্ষণের সময় বেশ কিছু ভুল তথ্য চলে এসেছে বা এই কয়েক বছরে অনেকের ঠিকানাসহ অন্যান্য তথ্যে পরিবর্তন এসেছে।

এত দিন নাগরিকেরা ঢাকার নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের অফিসে যোগাযোগ করে তাঁদের তথ্য হালনাগাদ করতে পারতেন। কিছুদিন হলো ইন্টারনেটে এ কাজটি করা যাচ্ছে। পাশাপাশি নতুন ভোটার হওয়ার জন্য আবেদন করার ব্যবস্থাও রয়েছে এই ওয়েবসাইটে।
বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের মূল ওয়েবসাইট http://www.ecs.gov.bd/ এ গিয়ে ডান পাশের কলাম থেকে এনআইডি অনলাইন সার্ভিসেস লিংক থেকে অথবা সরাসরি services.nidw.gov.bd ঠিকানা থেকে এই অনলাইন সেবাগুলো পাওয়া যাবে। জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য হালনাগাদ করার জন্য নিবন্ধন করে পাসওয়ার্ড সংগ্রহ করতে হবে। নিবন্ধন করার সময় জাতীয় পরিচিতি (এনআইডি) নম্বর, জন্মতারিখ মোবাইল ফোন নম্বর, ই-মেইল, বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানায় উল্লেখিত বিভাগ, জেলা, থানা নাম লিখে নিবন্ধন করতে হবে। এরপর ওই নির্দিষ্ট মোবাইল ফোন নম্বরে একটি ‘অ্যাকাউন্ট অ্যাকটিভেশন কোড’ পাঠানো হবে।
নিবন্ধনের পরবর্তী ধাপে এই কোড লেখা হলে নিবন্ধন সম্পন্ন হবে। পরবর্তী সময়ে এই সাইটে ঢুকতে (লগ–ইন) হলে এনআইডি নম্বর, জন্মতারিখ ও পাসওয়ার্ড লিখতে হবে। এখানে খেয়াল রাখতে হবে যে এনআইডি নম্বর যদি ১৩ সংখ্যার হয়ে থাকে তবে মূল এনআইডি নম্বরের আগে জন্মসালটি লিখতে হবে। লগ–ইন করার পর তথ্য, ঠিকানা, ভোটার এলাকা, ছবি পরিবর্তনের জন্য আলাদা আলাদা অনুচ্ছেদ রয়েছে। এ ছাড়া আইডি কার্ড পুনর্মুদ্রণ এবং নতুন ভোটারের আবেদনের হাল অবস্থা জানারও সুযোগ রয়েছে এই প্যানেলে।
অনলাইনে আবেদনের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশন অফিসের মূল কার্যালয় থেকে অথবা স্থানীয় থানা/উপজেলা অফিস থেকে আবেদন করেও হারানো কার্ড আবার উত্তোলন করা অথবা নতুন আবেদন করার ব্যবস্থাও রয়েছে। এ ফরমগুলো পাওয়া যাবে services.nidw.gov.bd/forms ঠিকানায়। নতুন আবেদন ও তথ্য হালনাগাদ-সংক্রান্ত সাধারণ কিছু প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যাবে services.nidw.gov.bd/faq ঠিকানার ওয়েবসাইটে। 
নতুন নতুন খবর জানতে প্রতিদিন ভিজিট করুন বিডি টিপ্স টেক
Read More »

শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ০৮, ২০১৯

মজিলা ফায়ারফক্স, গুগল ক্রোম নাকি অপেরা।কোনটি বেস্ট ?

বিডি টিপ্স টেকে আপনাদের স্বাগত ম। ওয়েব ব্রাউজার হচ্ছে পিসির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান গুলোর একটি। আপনি যদি গ্রাফিক্স অথবা এডিটিং এর মতো কাজগু‌লো‌তে সময় না কাটান, তাহলে আপনার ব্রাউজারেই অধিকাংশ সময় কাটানোর সম্ভবনা বেশি। এজন্য একটা ভালো মানের ব্রাউজার বেছে নেয়া অনেকটাই গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়। আজকে আমরা সবচেয়ে প্রচলিত সেরা তিনটি ব্রাউজারের মধ্যে তুলনা করবো। আর জানার চেষ্টা করবো সেরাদের মধ্যে সেরা কে। (বিশেষ দ্রষ্টব্য : এই রিভিউতে আমি সবগুলো ব্রাউজারের লেটেস্ট ভার্সন ব্যবহার করেছি। পুরাতন ভার্সন ব্যবহারের জন্য পারফরমেন্সের তারতম্য হতে পারে। ) 
মজিলা ফায়ারফক্স, গুগল ক্রোম নাকি অপেরা-বিডি টিপ্স টেক
মজিলা ফায়ারফক্স, গুগল ক্রোম নাকি অপেরা-বিডি টিপ্স টেক


যেসব কারণে আপনি ক্রোম ব্যবহার না করে ফায়ারফক্স ব্যবহার করবেন গুগল ক্রোম ব্রাউজারের সেরা ১২ টি এক্সটেনশন যা ইউজ করলে অবাক হবেন কেন আপনি গুগল ক্রোম বাদ দিয়ে মজিলা ফায়ারফক্স ব্যবহার করবেন গুগল ক্রোম, মজিলা ফায়ারফক্স অফলাইন ইন্সটল এবং কিছু টিপস মজিলা ফায়ারফক্স, গুগল ক্রোম, অপেরা, সাফারী অনেক ব্যাবহার করেছেন  মোবাইল ব্রাউজার মজিলা ফায়ারফক্স,সাফারি,গুগুল ক্রোম আপনার গুগল ক্রোম ও মজিলা ফায়ারফক্স থেকে কিভাবে কুকি ডিলিট করবেন 


১. স্পিড এবং পারফরমেন্স : আমরা সাধারণ মাানুষেরা প্রথমে যে জিনিসটা দেখি সেটা হলো একটা ব্রাউজারের স্পিড এবং সেটার পারফরমেন্স। ব্রাউজারের স্পিড টেস্ট করার জন্য প্রচলিত তিনটি পরীক্ষা হলো JetStream, Kraken এবং RoboHornet. এই তিনটিতেই গুগল ক্রোম অন্য দুটি থেকে অনেকখানি এগিয়ে আছে। স্পিড এবং পারফরমেন্সের বিচারে ক্রোমের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছে ফায়ারফক্স। স্পিড এবং পারফরমেন্স বিজয়ী : গুগল ক্রোম

 ২. ইউজার ইন্টারফেস এবং কাস্টমাইজেশন : তিনটা ব্রাউজারের ইউজার ইন্টারফেসই তুলনামূলক ভালো। ক্রোমের ক্ষেত্রে বলা যায় এটা ফ্রেশ এবং ইউজার ফ্রেন্ডলি। তবে ক্রোমে কাস্টমাইজেশন সুবিধা তেমনটা নেই। মজিলা ফায়ারফক্সের ইন্টারফেস ক্রোমের মতো না হলেও এটার রয়েছে অসাধারণ কাস্টমাইজেশন সুবিধা। আপনি থিম পরিবর্তন করা থেকে শুরু করে সবকিছুই নিজের মতো সাজিয়ে নিতে পারবেন। মজিলা এদিক থেকে ক্রোমের চাইতে অনেক এগিয়ে আছে। অপেরাতে কাস্টমাইজেশনের সেরকম সুবিধা না থাকলেও এটার ইন্টারফেস একদম ফেলনা নয়। ইউজার ইন্টারফেস এবং কাস্টমাইজেশন বিজয়ী : মজিলা ফায়ারফক্স

 ৩. সিকিউরিটি : অধিকাংশ ব্যবহারকারী ব্রাউজারের নিরাপত্তার দিকে নজর দেয় না। যার ফল হাতেনাতে ভোগ করতে হয় ভাইরাস অথবা ম্যালওয়ারের আক্রমনের স্বীকার হয়ে। এছাড়া ব্রাউজার থেকে ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য বেহাত হওয়ার মত বিপত্তি তো আছেই। ক্রোম এক্ষেত্রে খুব ভালো একটা সমাধান হতে পারে আপনার জন্য। ক্ষতিকর সাইট, ফিসিং সাইট, ম্যালওয়ার অথবা ট্রোজান আক্রান্ত সাইটগুলি খুব ভালোভাবে ক্রোম ব্লক করে দিতে পারে। মজিলাও এক্ষেত্রে অনেকখানি এগিয়ে আছে, তবে অপেরা নিরাপত্তার দিক দিয়ে ক্রোম থেকে অনেকখানি পিছিয়ে। সিকিউরিটি সেকশনের বিজয়ী : গুগল ক্রোম 

৪. প্রাইভেসি : আমরা বাংলাদেশীরা আমাদের প্রাইভেসি নিয়ে খুব একটা মাথা ঘামাই না। কিন্তু ইউরোপীয়ান অথবা অামেরিকান দেশ গুলো তাদের প্রাইভেসি সম্পর্কে যথেষ্ট সচেতন। গুগলের বিরুদ্ধে তাদের ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্যের ব্যবহার নিয়ে অনেক আগে থেকেই অভিযোগ ছিলো। সম্প্রতি আরেকটি বিষয় উঠে এসেছে। আমরা সবাই জানি প্রায় প্রতিটা ব্রাউজারেই সিক্রেট মোড বা প্রাইভেট ব্রাউজিং নামের একটা অপশন থাকে। যেখান থেকে আপনি যাই করেন না কেন, ব্রাউজার বন্ধ করার সাথে সাথে সেগুলোর ব্রাউজিং হিস্টরি অথবা কুকিজ মুছে যায়। কিন্তু গুগলের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিলো তারা তাদের ব্যবহারকারীদের প্রাইভেট মোডে ব্রাউজ করা তথ্যাদিও তারা তাদের সার্ভারে সংরক্ষণ করে রাখছে। যেটার দ্বারা খুব সহজেই আপনার প্রাইভেট জিনিসগুলোর ওপর গুগল নজরদারি চালাতে পারে। কিন্তু এক্ষেত্রে মজিলা ফায়ারফক্স অনেক এগিয়ে। মজিলা সম্পূর্ণরূপে ওপেন সোর্স হওয়ায় তাদের নিয়ে এ ধরনের কোন ঝুঁকি নেই। অপেরার বিরুদ্ধেও ব্যবহারকারীদের তথ্য অপব্যবহারের কোন অভিযোগ নেই। তবে মজিলা ওপেন সোর্স হবার কারনে, প্রাইভেসি সেকশনে মজিলাই এগিয়ে। প্রাইভেসি সেকশনে বিজয়ী : মজিলা ফায়ারফক্স

 ৫. এক্সটেনশন : কয়েকটি ব্রাউজারের মধ্যে তুলনা করতে গেলে আরো অনেকগুলি জিনিস বিবেচনা করতে হয়। যেমন একটি হচ্ছে এক্সটেনশন। ক্রোমের ওয়েব স্টোর হচ্ছে এক্সটেনশনের একটা সমুদ্র। বিপুল পরিমাণ অসাধারণ কিছু এক্সটেনশন নিয়ে ক্রোম রয়েছে সবার আগে। মজিলার ক্ষেত্রে এক্সটেনশনকে বলে অ্যাড অন। মজিলার অ্যাড অন যথেষ্ট আছে, তবে ক্রোমের মতো বিপুল পরিমাণ না। আর অপেরা প্রথমে এদিকে অনেক পিছিয়ে ছিলো। কিন্তু নতুন একটা আপডেট আর নতুন একটা এক্সটেনশন আসার পর সেটার মাধ্যমে ক্রোম ওয়েব স্টোরের সবগুলো এক্সটেনশন (হ্যাঁ, আপনি ঠিকই পড়েছেন, গুগল ক্রোমের সবগুলো এক্সটেনশন ) অপেরাতে ব্যবহার করা যায়। যেহেতু এগুলো অপেরার নিজস্ব এক্সটেনশন না, তাই এক্ষেত্রে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে ক্রোম। এক্সটেনশন বিজয়ী : গুগল ক্রোম 

৬. অন্যান্য : অন্যান্য বিষয় গুলোর মধ্যে রয়েছে পপ আপ এবং অ্যাড ব্লক। গুগল ক্রোম এবং মজিলা ফায়ারফক্স এক্ষেত্রে অনেকটাই এগিয়ে অপেরার চাইতে। আবার অপেরার কিছু ফিচার রয়েছে যেমন বিল্ট ইন ভিপিএন, বিল্ট ইন মেসেন্জার এবং হোয়াটসঅ্যাপ। যেগুলো আপনি গুগল ক্রোম কিংবা মজিলা ফায়ারফক্সে পাবেন না। আরেকটি জিনিস হলো সিনক্রোনাইজেশন। গুগল ক্রোম এক্ষেত্রে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে। ব্রাউজারে সাইন ইন করা থাকলে আপনি যেকোন ডিভাইস থেকে আপনার বুকমার্ক, হিস্ট্রি দেখতে পারেন। ক্রোমের আরো একটা আকর্ষণীয় ফিচার রয়েছে। বিল্ট ইন ট্রান্সলেশন। আপনি ওয়েব ব্রাউজ করতে করতে বিদেশী ভাষার কোন পেজে চলে গেলে ক্রোম আপনাকে অটোমেটিক পছন্দ মত একটা ভাষায় সেই পেজ দেখার সুযোগ করে দেয়।

 অন্যান্য সেকশনে বিজয়ী : গুগল ক্রোম ফলাফল : ফলাফল সম্পূর্ণ আপনার হাতে। আপনি যদি আপনার প্রাইভেসি নিয়ে খুব বেশি উদ্বিগ্ন না হন, তাহলে গুগল ক্রোম ১ নম্বর। আর যদি আপনার প্রাইভেসি আপনার নিকট একটি স্পর্শকাতর বিষয় হয়, তাহলে Mozilla Firefox is the best.

যেকোনো প্রয়োজনে আমরা আছি
আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ bd tech group
ফেইসবুক পেইজ bd tips tech
ইউটিউব চ্যানেল Youtube channel
Read More »

বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ০৭, ২০১৯

ব্লগস্পট ব্লগের মোবাইল ভার্সন থেকে Powered By Blogger রিমুভ করতে চান?

খুবই ভালো লাগছে যে, একটি কাজের ট্রিকস নিয়ে আজ আপনাদের সামনে হাজির হলাম। শিরোনাম দেখেই নিশ্চয়ই আগ্রহের মাত্রা বেড়ে গেছে? হ্যাঁ, আপনারা, আমরা সবাই ব্লগস্পট ব্লগের Attribution সম্পর্কে নিশ্চয়ই জানি? অর্থাৎ ব্লগস্পট ব্লগে Powered By Blogger লেখাটিকে Attribution বলা হয়। এই ক্রেডিট লিঙ্ক সবাই রিমুভ করতে পারেন সেটা জানি। কিন্তু অনেক ব্লগস্পট ব্লগ দেখেছি যারা এই Attribution টি ঠিকই রিমুভ করতে পেরেছেন কিন্তু পিসি থেকে এই লেখাটি দূর করতে পারলেও আপনি কিন্তু আপনার ব্লগের মোবাইল ভার্সন থেকে এটা তাড়াতে পারেন নি। আর সেই অসম্ভব কাজকে সম্ভব করব আমরা। যেমনঃ ব্লগার মারুফ ডট কম মোবাইল ভার্সন দেখুন, তাতে Powered By Blogger লিঙ্কটি নেই। এবার নিশ্চয়ই আপনার ধৈর্যের বাঁধ ভেঙ্গে যাচ্ছে? আর দেরি করব না। চলুন শিখে নেই ব্লগস্পট ব্লগের মোবাইল ভার্সন থেকে Powered By Blogger লিঙ্কটি রিমুভ করতে হয় কিভাবে।
  • ব্লগস্পট ড্যাশবোর্ড থেকে  Template > Edit HTML অপশনে যান।
  • টেমপ্লেটের কোডগুলো থেকে আগে খুঁজে দেখুন নিচের কোডটুকু আছে কিনা। যদি কোডটি খুঁজে পান তবে সেটি রিমুভ করে দিন আর না পেলে আরও ভালো কথা।
 <b:widget id='Attribution1' locked='true' title='' type='Attribution'/>
  • এবার আসি মূল কাজে। এবার </body> কোডটি খুঁজে বের করুন। আর কোডটির উপরেই বসিয়ে দিন নিচের কোডটুকু।
<div style='display:none;'> <b:section class='hiddenbar' id='hiddenbar' preferred='no'> <b:widget id='Attribution1' locked='true' mobile='no' title='' type='Attribution'/> </b:section> </div>
  • সবশেষে টেমপ্লেট সেভ করুন।
  • এখন আপনার ব্লগের মোবাইল ভার্সন ভিজিট করে দেখুন Attribution  টি রিমুভ হয়েছে কিনা।
আমি নিজের ব্লগে প্রয়োগ করেই আপনাদের সাথে শেয়ার করছি ট্রিকসটি। বুঝতে সমস্যা হলে অথবা কাজ না করলে জানাবেন কমেন্টে। সমাধান করার চেষ্টা করব ইনশাল্লাহ। আজকের মত এখানেই বিদায়। আল্লাহ হাফেজ। post by ভিসিটর টিউন ডট কম
Read More »

শনিবার, ফেব্রুয়ারী ০২, ২০১৯

ছাত্র জীবনে ১০টি ভুল যা আপনার ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দিতে পারে

বিডি টিপ্স টেকে আপনাদের স্বাগতম।ছাত্রজীবন হলো আমাদের জীবনের সবথেকে গুরুত্তপূর্ণ একটি অধ্যায়। যেই সময়টিকে আমরা ভবিষ্যৎ এর চাবিকাঠি হিসেবে ব্যবহার করে থাকি। তবে যেই সময়টিই আমাদের জন্য এতটা গুরুত্তপূর্ণ সেই সময়টিকেই আমরা হেয়ালিপনাতেই কাটিয়ে দিই সবথেকে মজার এবং হাস্যকর যেই ব্যাপার টি তা হলো আমরা বুঝতেও পারি না যে আমাদের এই সময় টা কে আরো বেশি করে কাজে লাগানো উচিত বা এটার যথাযথ ব্যবহার করা উচিত। বড়দের কথাগুলো ও অনেক দিক নির্দেশনা মূলক হয়ে থাকে, তবে আমরা তাদেরকে এতটা মূল্যায়ন করি না, যেটা আমরা পরে বুঝতে পারি। চলো দেখা যাক ছাত্র জীবনের ১০ টি ভুল যা আমাদের ক্যারিয়ার ধ্বংস করতে পারেঃ
stuendnt life fault-bd tips tech
stuendnt life fault-bd tips tech

পেশা নির্বাচন করার সঠিক কৌশল - ১০টি চমৎকার কৌশল  ১০ অভ্যাসে ক্যারিয়ার শেষ কাজ ফেলে রাখা বা ঢিলেমির ৮টি ভয়াবহ কুফল ছাত্র জীবনে যা দরকার ছাত্র জীবনের কর্তব্য ছাত্র জীবনের আদর্শ ও কর্তব্য ছাত্র জীবনের দায়িত্ব ও কর্তব্য রচনা pdf ছাত্র জীবনে শৃঙ্খলা ও নিয়মানুবর্তিতা ছাত্র জীবনে শৃঙ্খলা ও নিয়মানুবর্তিতা রচনা ছাত্র জীবনে শৃঙ্খলা রচনা প্রবন্ধ রচনা ছাত্র জীবনের দায়িত্ব ও কর্তব্য ছাত্র জীবনে নিয়মানুবর্তিতা

 ১. বড়দের কথা না শোনাঃ শুরু টা স্কুল জীবন দিয়েই করা যাক। স্কুল জীবনটা আমাদের জীবনের সবথেকে মধুর অধ্যায়। এই সময়টাকে আমরা শৈশবকাল বলে থাকি যখন আমাদের কোনো ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা বা চিন্তা কোনোটাই থাকে না। তাই বড়দের কথা শুনতে হবে। 

২. বন্ধুবান্ধব এ আসক্তিঃ বন্ধুবান্ধব, খেলাধুলা, আনন্দ, মাস্তিতেই এ জীবনটা আমরা অতিবাহিত করে থাকি। শৈশবকালে আমাদের খেলাধুলা এবং বন্ধুবান্ধব, এর প্রতি বেশি আসক্ত হয়ে পরাটা আমাদের জন্য ক্ষতিকর। 

৩. নিজের ওয়াদা নিজেই ভঙ্গ করাঃ কিছু মানুষ আমাদের চারপাশে থাকে যারা কিভাবে যেন সবকিছুতেই ভয়াবহ রকমের সাফল্য পায় কিন্তু আমরা চেষ্টা তো করি কিন্তু পারি না কেনো? উত্তর টা আমাদের খুজে বের করতে হবে এবং দূর্বল যায়গা গুলোতে উন্নতি করতে হবে।

 ৪. কৈশোরে পারিপার্শ্বিকঃ আমরা আমাদের পারিপার্শ্বিক এর সাথে অনেক সময় পড়ালেখা বা অনেক কিছুতেই পেরে উঠি না, তার কারন আমরা আমাদের ১০০% পরিশ্রম দিতে ব্যর্থ। সফলতা পাওয়ার কোনো সহজ উপায় নেই তাই পরিশ্রম করেই সফলতা অর্জন করতে হবে। 

৫. কলেজ লাইফে উশৃঙ্খলতাঃ মদ, ইয়াবা ইত্যদি বিভিন্ন নেশাতে জড়িয়ে পড়া এই সময়টার সবথেকে বড় ভুল। নেশা থেকে আমাদের দূরে থাকতে হবে। 

৬. বন্ধুদের প্রলোভনঃ বন্ধদের খারাপ প্র্লোভন থেকে আমাদের নিজেদেরকে রক্ষা করতে হবে। 

৭. ভালো কাজে নিজ দায়িত্বঃ এই সময় টাতে আমরা জীবনের মানেগুলো বুঝতে পারি এবং আমরা আমাদের জীবনটাকে গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করি। আমাদের ভালো কাজগুলোর প্রতি দ্বায়িত্ববান থাকা উচিত। 

৮. বন্ধু বাছাইঃ এই সময়েই আমরা অনেকেই অনেক খারাপ কাজে জড়িয়ে পরি যেটা আমাদের পরবর্তী জীবনে খারাপ প্রভাব ফেলে। তাই আমাদের ভালো বন্ধু বেছে নেয়া দরকার। 

৯. সময়ের সঠিক ব্যবহার না করাঃ আমরা সবাই “সময়ের মর্যাদা” রচনাটি কম বেশি পরেছি কিন্তু আমরা কি আমাদের সময়টাতক সঠিখভাবে কাজে লাগাই? সময়টাকে সঠিক পথে ব্যবহার করতে হবে। 

১০. আপনার স্বপ্নঃ আমি কি হবো? আমার ক্যারিয়ারের কি হবে? আগে এই সিদ্ধান্ত নিতে হবে তারপর সেই আনুযায়ি আমাদের সামনে এগিয়ে যেতে হবে। জেনে রাখা উচিত যে উদ্দেশ্যহীন যাত্রা কখোনো মধুর হয় না। “সবার জন্য শুভকামনা”

যেকোনো প্রয়োজনে আমরা আছি
আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ bd tech group
ফেইসবুক পেইজ bd tips tech
ইউটিউব চ্যানেল Youtube channel
Read More »

শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ০১, ২০১৯

মাইক্রো ফ্রিলাঞ্চিং সাইট থেকে কোন রকম বিড ছাড়াই প্রতি দিন অনলাইন থেকে আয় করুন ৩ /৫ ডলার

মাইক্রো ফ্রিলাঞ্চিং সাইট থেকে কোন রকম বিড ছাড়াই প্রতি দিন অনলাইন থেকে আয় করুন ৩ /৫ ডলার।
ইন্টারনেটে বিভিন্ন আর্নিং প্রদ্ধতির মধ্যে মাইক্রো ফ্রিল্যানিং অন্যতম। এই সাইটগুলার সুবিধা এখানে কোনো প্রকার বিড করা লাগেনা। তাই সহজেই এই সাইট থেকে আপনি কাজ করে প্রতিমাসে ৫০/১০০ ডলার যায় করতে পারেন। নতুনদের জন্য এই সাইট বেটার হবে। এখানে কাজ করলে আপনি এসইও সম্পর্কে অনেক কিছু শিখতে পারবেন। নিচে সাইট গুলার নাম হল : ১। মাইক্রোওয়ার্কার্স ২। রেপিড ওয়ার্কার্স
মাইক্রোওয়ার্কার্স: মাইক্রোওয়ার্কার্স একাউন্ট করতে পারবেন ফ্রিতে কিন্তু একাউন্ট করার পর আপনাকে একটা টেস্ট দিতে হবে, সেটা পাস্ করলে আপনি কাজ করতে পারবেন। মিনিমাম উইথড্র ১০ ডলার। পেমেন্ট মেথড স্ক্রিল, ব্যাঙ্ক ট্রান্সফার, পেপ্যাল, payoneer ইত্যাদি।
পেমেন্ট প্রুফঃ





রেপিড ওয়ার্কার্স : রেপিড ওয়ার্কার্স একাউন্ট করতে পারবেন ফ্রিতে এবং উইথড্র মেথেড পেপ্যাল। মিনিমান উইথড্র ৮ ডলার। কাজগুলা হল :
১। ওয়েব সাইট ভিজিট অ্যান্ড কেওয়ার্ড সার্চ। মিনিমান পেমেন্ট। .০২ সেন্ট থেকে ১ ডলার পর্যন্ত।
২। ওয়েব সাইট Sing up। মিনিমান.১0 সেন্ট থেকে ২ ডলার পর্যন্ত।
৩। সোস্যাল মিডিয়ার কাজঃযেমন- ফেসবুক লাইক, টিউমেন্ট, শেয়ার এতচ। মিনিমা্ম.০২ থেকে.১ ডলার পর্যন্ত।
৪। ইউটিউব ভিডিও মার্কেটিংয়ের কাজঃযেমন-- ইউটিউব ভিউ, লাইক, টিউমেন্ট, শেয়ার, subscribe ইত্যাদি। মিনিমা্ম.০২ থেকে.১ ডলার পর্যন্ত।
৫। আপ্পস ডাউনলোড অ্যান্ড রিভিউ। মিনিমা্ম.১০ থেকে ২ ডলার পর্যন্ত।
৬। আইফোন রিভিউ। মিনিমা্ম.৬০ থেকে ২ ডলার পর্যন্ত।
৭। Amazon products রিভিউ অ্যান্ড ভেটিং ইত্যাদি। মিনিমা্ম.১০ থেকে ১০ ডলার পর্যন্ত।
৮। ডাউনলোড ফাইল ইত্যাদি। মিনিমা্ম.৩০ থেকে ২ ডলার পর্যন্ত।
আমি মূলত ১ থেকে ৮ পর্যন্ত কাজ গুলা করে থাকি। আমি যখন ফ্রী টাইম পাই তখন এই সাইট এ কাজ
একটা ভিডিও আছে এই সাইট এর কিভাবে এই সাইট এ অ্যাকাউন্ট করবেন এবং কিভাবে কাজ শুরু করবেন?
আমি গত ২ সপ্তাহে ৫০ ডলার আয় করছি। নিচে আমার টোটাল আয়ের স্ক্রিনশর্ট দিলাম। যারা অনলাইনে অনেক দিন ধরে চেষ্টা করে, ইনকাম করতে পারেননি, তাদের জন্য ও নতুনদের জন্য আমার এই পোস্টটি।
পেমেণ্ট প্রুফঃ

যারা অনলাইনে অনেক দিন ধরে চেষ্টা করে, ইনকাম করতে পারেননি, তাদের জন্য ও নতুনদের জন্য আমার এই পোস্টটি।

Read More »

Get post by Email

copyright 2014-19@bdtipstech DMCA.com Protection Status